Alexa ট্রেনে কাটা পড়া নারীর সঙ্গে সেলফি, সমালোচনার ঝড়

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৬ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

ট্রেনে কাটা পড়া নারীর সঙ্গে সেলফি, সমালোচনার ঝড়

 প্রকাশিত: ১২:১৯ ৬ জুন ২০১৮   আপডেট: ১২:৫৯ ৬ জুন ২০১৮

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বর্তমানে স্মার্ট হওয়ার কোনো ব্যাকরণ নেই। তাই যে যেরকম করে পারে, সে তার স্মার্টনেস তুলে ধরে। এই যেমন ধরুন স্মার্টফোনের বদৌলতে চলন্ত গাড়ির সামনে সেলফি, ঝুলন্ত ব্রিজ থেকে সেলফি, বাঘ-ভাল্লুককে সঙ্গে নিয়ে সেলফি। যা সাধারণ বিষয়ে পরিণত হয়েছে। তবে এতে ঘটছে বিপত্তি।

রোমাঞ্চকর মুহূর্ত ধরে রাখতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেলফি তুলে অনেকেই মৃত্যু বরণ করেছেন। এমন ঘটনাও কম নয়। দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট

ট্রেনে ধাক্কা লেগে এক ব্যক্তির পা কাটা যায়। আর তাকে উদ্ধার না করে, সেলফি তুলে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ইতালির পিয়ানসেঞ্জারের এক যুবক। আর সেই সেলফিকে কেন্দ্র করে এখন বিশ্বজুড়ে নিন্দার ঝড়।

ওই সেলফিতে দেখা গেছে, ট্রেনে ধাক্কা লেগে আহত হয়ে এক বয়স্ক নারী রেললাইনে পড়ে আছেন। তাকে সেবা-শুশ্রুষা করছেন প্যারামেডিক্সের কয়েকজন চিকিৎসক। ঠিক ওই সময় ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করতে ব্যস্ত। সাদা শর্টস ও টি-শার্ট পড়ুয়া এক যুবক মোবাইলের ক্যামেরায় বিজয় চিহ্ন হাঁকিয়ে সেলফি তুলছেন। খবরে বলা হয়, অজ্ঞাত ওই নারীর পা ট্রেনে কাটা পড়ে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ঘটনাটি ২৬ মে’র।

গিয়োর্জি লাম্ব্রী নামের এক সাংবাদিক সেলফি তোলার দৃশ্যটি ক্যামেরাবন্দি করেন। পরে ইতালির লিবার্টা পত্রিকা তাদের ফ্রন্ট পেজে ছবিটি প্রকাশ করে। ওই সাংবাদিক বলেন, আমরা নৈতিকতার সবটুকুই হারিয়েছি। সবচেয়ে ভীতিকর হল ওই যুবক। আমি কিছুতেই তার এ রকম কাণ্ডজ্ঞানহীন আচরণ বুঝতে পারিনি। আমি একজন অভিজ্ঞ সাংবাদিক। আমি বেশিরভাগ সময়ই অপরাধ বিষয়ক সংবাদ সংগ্রহ করি। এ কারণে আমাকে অনেক মর্মান্তিক দৃশ্যের সম্মুখিন হতে হয়। তবে ওই যুবকের সেলফি তোলার ঘটনা আমাকে পীড়া দিয়েছে।

সেলফি তোলা নিয়ে তার প্রতিবেদনের শিরোনাম দেয়া হয়েছে- ‘এ বর্বরতা আপনি আশা করতে পারেন না: বিয়োগান্তক ঘটনার সামনে সেলফি’। অন্য একটি ইতালির সংবাদপত্র বিষয়টিকে বিশ্লেষণ করে বলেছে ‘এক ধরনের ক্যান্সার যা ইন্টারনেটের এগিয়ে যাওয়াকে বাধাগ্রস্ত করছে’। ওই সেলফিকে ‘হৃদয়বিদারক ঘটনার প্রতিকৃতি’ বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

হৃদয়স্পর্শী ঘটনাটি বিশ্বের গণমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত হলে, ওই যুবকের দিকে নিন্দার তীর ছুড়ে দিয়েছেন অনেকে। টুইটারে একজন মন্তব্য করেছেন, বিশ্ব উন্মাদ হয়ে গেছে। আরেকজন দৃশ্যটিকে ‘স্বার্থপর বিবেকের পৈশাচিক রূপ’ বলে মন্তব্য করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে

Best Electronics
Best Electronics