Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

ট্রাফিক সার্জেন্টের আচরণে বিব্রত পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদকডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
ট্রাফিক সার্জেন্টের আচরণে বিব্রত পুলিশ

ট্রাফিক সার্জেন্ট মুস্তাইনের আচরণে বিব্রত পুলিশ। বুধবার বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে রাজধানীর মৎস্য ভবন সিগন্যালে দৈনিক মানবজমিনের ফটো সাংবাদিক নাসির উদ্দিনকে মারধর করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক দক্ষিণ বিভাগের এই সার্জেন্ট। মারধরের ঘটনার ছবি প্রকাশের পর ছবিটি ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। তীব্র সমালোচনা শুরু হয় সার্জেন্ট মুস্তাইনের এমন আচরণের। বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাও তার এ আচরণে বিব্রত হয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

একসময় ডিএমপি’র জনসংযোগ শাখায় ও ট্রাফিক উত্তর বিভাগে কাজ করছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ। বর্তমানে তিনি মৌলভী বাজার জেলার কুলাউড়া সার্কেলে কর্মরত। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে আগে দেওয়া ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘প্রতিটি সার্জেন্টকে পুলিশ-সাংবাদিক সম্পর্ক প্রশিক্ষণ দেওয়া জরুরি। তারা আমাদের অর্জনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে।’

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের রংপুর বিভাগে কর্মরত আছেন পুলিশের সাব ইনস্পেক্টর সালেহ ইমরান। তিনি ফেসবুকে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সার্জেন্ট মুস্তাইনের মারধরের ছবি দিয়ে ওই স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘আইন আপনাকে ক্যামেরা কেড়ে নেওয়ার শিক্ষা দেয়নি। দায়িত্ব পালনে কেউ বাধা দিলে ভদ্রভাবে বুঝিয়ে বলুন। যদি কেউ আইনের সঠিক কাজটি করতে বাধা দেয়, প্রয়োজনে আপনার সঙ্গে যে স্মার্ট ফোনটা আছে, সেটা সহকর্মীকে দিয়ে ভিডিও করতে বলুন।’

সালেহ ইমরান আরও লিখেছেন, ‘আপনার কাজের বৈধতা থাকলে কেউ ছবি তুলে বা ভিডিও করেও কিছু করতে পারবে না, যদি আপনার কোনও দুর্বলতা না থাকে। আর দুর্বলতা থাকলে কখনও এই পেশার লোকের সঙ্গে লাগতে যাবেন না। আপনাকে কোন পর্যায়ে নামিয়ে দেবে, কল্পনাও করতে পারবেন না। মনে রাখবেন, আপনার পজিটিভ ইমেজ যেমন পুরো বাহিনীর ইমেজ ওপরে নিয়ে যায়, ঠিক তেমনি বাহিনীর একজনের নেগেটিভ ইমেজ পুরো বাহিনীর ইমেজকে নিচে নামিয়ে দেয়। তাই, ভেবে চিন্তে, ঠাণ্ডা মাথায় কাজ করুন।’

পিবিআই’তে কর্মরত পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও লিখেছেন, ‘পুলিশ ও সাংবাদিক কেউ কারও প্রতিপক্ষ নয়। দেশের জন্য এই দুই পেশার মানুষের অবদান অনেক অনেক বেশি। সাংবাদিক মানেই কারও কারও কাছে চুলকানি, এই কনসেপশন থেকে বের হয়ে না এলে এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে, এটাই স্বাভাবিক। মনে রাখবেন দিন শেষে এই সাংবাদিকের কারণেই কনস্টেবল শের আলীর কান্না দেশের কোটি কোটি মানুষকে আবেগাপ্লুত করেছে। কনস্টেবল পারভেজ দেশের কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন। উল্টোপথে আসা বড় বড় রথী-মহারথীও লজ্জায় মুখ লুকিয়েছেন! আপনার বা আমার কর্মকাণ্ডের কারণে সেই একই লজ্জায় কেন পুরো বাহিনী মুখ লুকাবে?’

সালেহ ইমরান তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘ঢালাওভাবে কোনও ব্যক্তির দায়ভার কখনোই পুরো পেশার সঙ্গে মেলানো কাম্য নয়। হোক সে পুলিশ, সাংবাদিক, ডাক্তার বা অন্য যে কেউ। প্রত্যেকেরই উচিত, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে তার বৈধ কাজে সহযোগিতা করা। বাধা সৃষ্টি করা নয়।’

ডিএমপির নিউজ ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বুধবার মৎস্য ভবন ক্রসিংয়ে ট্রাফিক সার্জেন্টের হাতে একজন ফটো সাংবাদিককে লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের নজরে এসেছে। এ ঘটনায় জড়িত সার্জেন্ট মুস্তাইনকে ক্লোজড করা হয়েছে। এ সংক্রান্তে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দৈনিক মানবজমিনে কর্মরত ফটো সাংবাদিক নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমি বুধবার (১১ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে মোটরসাইকেলে প্রেস ক্লাব থেকে আমার অফিসে যাচ্ছিলাম। মৎস্য ভবনের সামনে আসার পর সার্জেন্ট মুস্তাইন আমাকে মোটরসাইকেল থামানোর নির্দেশ দেন। এরপর আমি মোটরসাইকেলটি থামিয়ে দেই। আমার সঙ্গে দৈনিক জনকণ্ঠের ফটো সাংবাদিক জীবন ঘোষ ছিলেন। তখন সার্জেন্ট আমার কাছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ও গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চান। আমি তাকে কাগজপত্র সব দেই। এরপরও দেখি তিনি মামলা দিচ্ছেন। আমি তাকে জিজ্ঞাসা করলাম, মামলা দিচ্ছেন কেন? সার্জেন্ট আমাকে বললেন, হেলমেট নেই, সে জন্য মামলা দিচ্ছি। তখন তাকে আমি বলি, ভাই কয়েকদিন আগে আমার হেলমেট হারিয়েছে, দ্রুত হেলমেট কিনে ফেলব। বেতন পেলেই কিনব। আমাকে ছেড়ে দিন। তিনি তারপরও মামলা দেন। আমি তাকে অনুরোধ করতে থাকি। তখন তিনি আমাকে হলুদ সাংবাদিক বলেন। আমি প্রশ্ন করি, হলুদ সাংবাদিক বললেন কেন? আমি আমার ব্যাগ থেকে ক্যামেরা বের করে একটা ছবি তোলার চেষ্টা করি। তখন তিনি আমার গেঞ্জির কলার ধরে ক্যামেরা কেড়ে নেন। কিল-ঘুষি দিতে দিতে আমাকে পুলিশ বক্সের ভেতরে নিয়ে যান। সেখানে নিয়েও থাপ্পড় দেন। এ সময় আমার সঙ্গে থাকা জীবন ঘোষ এই মারধরের ছবি তুলতে গেলে তাকেও ধাওয়া দেন, অন্য ট্রাফিক পুলিশদের তাকে ধরতে বলেন। জীবন তখন দৌড়ে প্রেস ক্লাবের দিকে যান। আর আমাকে পুলিশ বক্সে আটকে রাখেন। আমার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার হুমকি দেন। গালিগালাজ করতে থাকেন। ৪/৫ জন ট্রাফিক পুলিশ বক্সে ঢুকে আমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতে থাকেন। পরে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসে সার্জেন্টকে প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।’

ডেইলি বাংলাদেশ/আর কে

আরোও পড়ুন
সর্বশেষ
বিজ্ঞানের আজব খবর
বিজ্ঞানের আজব খবর
নোয়াখালীতে পুলিশ-সাংবাদিক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ
নোয়াখালীতে পুলিশ-সাংবাদিক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ
আলিয়াকে চুম্বন করতে ভাল লাগে: অর্জুন
আলিয়াকে চুম্বন করতে ভাল লাগে: অর্জুন
সুপার কম্পিউটারে মহাজাগতিক সুর
সুপার কম্পিউটারে মহাজাগতিক সুর
লোকমান হোসেন প্রধান স্মরণে আলোচনা সভা
লোকমান হোসেন প্রধান স্মরণে আলোচনা সভা
বছরে এক লাখ রোগী মারা যাচ্ছে ক্যান্সারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বছরে এক লাখ রোগী মারা যাচ্ছে ক্যান্সারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সিলেটে জ্বলবে ১ হাজার সড়কবাতি
সিলেটে জ্বলবে ১ হাজার সড়কবাতি
বিরুষ্কা একে অপরের মেল এবং ফিমেল ভার্সন!
বিরুষ্কা একে অপরের মেল এবং ফিমেল ভার্সন!
নাসা কেন আর চাঁদে যাওয়ার চেষ্টা করেনি?
নাসা কেন আর চাঁদে যাওয়ার চেষ্টা করেনি?
সাইক্লোন শেল্টার ভাঙনের মুখে
সাইক্লোন শেল্টার ভাঙনের মুখে
সাকিবের  তোপ, ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ
সাকিবের তোপ, ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ
প্রবাসীরা অর্থনীতির ভিত মজবুত করছে: অর্থমন্ত্রী
প্রবাসীরা অর্থনীতির ভিত মজবুত করছে: অর্থমন্ত্রী
অসম সম্পর্কে ক্ষিপ্ত বাবা, জানালেন অনুভূতি
অসম সম্পর্কে ক্ষিপ্ত বাবা, জানালেন অনুভূতি
কোয়েলকেই চাইছেন জিৎ, কিন্তু কেন?
কোয়েলকেই চাইছেন জিৎ, কিন্তু কেন?
আফগান বোর্ড চেয়ারম্যানের পদত্যাগ
আফগান বোর্ড চেয়ারম্যানের পদত্যাগ
মাদক প্রতিরোধে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে
মাদক প্রতিরোধে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে
ইউএস-বাংলা হাই-টেক ও এনডিই’র মধ্যে চুক্তি
ইউএস-বাংলা হাই-টেক ও এনডিই’র মধ্যে চুক্তি
দশমিনায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা
দশমিনায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা
উৎসে কর কমানোর বিষয়টি বিবেচনায়: বাণিজ্যমন্ত্রী
উৎসে কর কমানোর বিষয়টি বিবেচনায়: বাণিজ্যমন্ত্রী
চাপ অব্যাহত রেখেছে বাংলাদেশ
চাপ অব্যাহত রেখেছে বাংলাদেশ
বাঞ্ছারামপুরে সংঘর্ষে শিশুসহ আহত ১৫
বাঞ্ছারামপুরে সংঘর্ষে শিশুসহ আহত ১৫
গণতন্ত্রের খোঁজে নজরুল
গণতন্ত্রের খোঁজে নজরুল
ভারতে অজানা জ্বরে ৭৯ জনের মৃত্যু
ভারতে অজানা জ্বরে ৭৯ জনের মৃত্যু
গভীর রাতের বৃষ্টিতে জনজীবনে স্বস্তি
গভীর রাতের বৃষ্টিতে জনজীবনে স্বস্তি
পদ্মায় ফের নৌকাডুবি, নিখোঁজ ৩
পদ্মায় ফের নৌকাডুবি, নিখোঁজ ৩
ভারতীয় সাংবাদিককে মাশরাফির পাল্টা জবাব
ভারতীয় সাংবাদিককে মাশরাফির পাল্টা জবাব
আলিয়াকে দাম বাড়ানোর পরামর্শ, কেন জানেন?
আলিয়াকে দাম বাড়ানোর পরামর্শ, কেন জানেন?
ভোলায় ভাঙাচোরা স্কুল ঘরে পাঠদান
ভোলায় ভাঙাচোরা স্কুল ঘরে পাঠদান
সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ২০ দলের দাবি মানতে হবে
সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ২০ দলের দাবি মানতে হবে
অভিনেত্রী নয়, এবার গায়িকা শুভশ্রী!
অভিনেত্রী নয়, এবার গায়িকা শুভশ্রী!
সর্বাধিক পঠিত
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
সুজির মালাই পিঠা
সুজির মালাই পিঠা
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
শচীনের সঙ্গে অভিনেত্রীর ‘গোপন’ সম্পর্ক!
শচীনের সঙ্গে অভিনেত্রীর ‘গোপন’ সম্পর্ক!
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
‘পবিত্র আশুরা’
‘পবিত্র আশুরা’
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
কাকে বিয়ে করবেন?
কাকে বিয়ে করবেন?
এ কেমন কাণ্ড পুলিশ পুত্রের!
এ কেমন কাণ্ড পুলিশ পুত্রের!
শিরোনাম:
সূচকের পতনে শেষ হল দেশের দুই পুঁজিবাজারের লেনদেন সূচকের পতনে শেষ হল দেশের দুই পুঁজিবাজারের লেনদেন টাইগারদের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে আফগানিস্তান টাইগারদের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে আফগানিস্তান গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন: রিজভী গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন: রিজভী বাম গণতান্ত্রিক জোটের ইসি ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা, আহত ২০ বাম গণতান্ত্রিক জোটের ইসি ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা, আহত ২০ ক্ষমতা হারানোর জ্বালা থেকেই মনগড়া কথা বলছেন এস কে সিনহা: ওবায়দুল কাদের ক্ষমতা হারানোর জ্বালা থেকেই মনগড়া কথা বলছেন এস কে সিনহা: ওবায়দুল কাদের