ট্রাফিক শৃঙ্খলা কার্যক্রম শুরু মঙ্গলবার

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১২ শাওয়াল ১৪৪০

ট্রাফিক শৃঙ্খলা কার্যক্রম শুরু মঙ্গলবার

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০:৫৪ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২০:৫৪ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজধানীতে ট্রাফিক শৃঙ্খলা কার্যক্রম পরিচালনা করতে যাচ্ছে ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগ। আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়ে এ কার্যক্রম চলবে ৩১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

সোমবার ডিএমপি’র এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। 

ডিএমপি জানিয়েছে, নগরীর ট্রাফিক আইন মেনে চলতে উদ্বুদ্ধকরণ ও ট্রাফিক শৃঙ্খলার উন্নতিকল্পে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। 

পাশাপাশি ট্রাফিক শৃঙ্খলা কার্যক্রম সফল করতে নগরবাসীর সহযোগিতা করার জন্যও অনুরোধ করা হয়েছে। 

ট্রাফিক শৃঙ্খলার উন্নয়নে যেসব কার্যক্রম পরিচালিত হবে- 

ট্রাফিক সচেতনতামূলক লিফলেট, প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন, গাইড বই বিতরণ। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার বিশিষ্টজনদের নিয়ে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইন্টারসেকশনসমূহে ট্রাফিক সচেতনতামূলক কার্যক্রমের আয়োজন। 

ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের উত্তর ও দক্ষিণের সঙ্গে সমন্বয় করে অবশিষ্ট জেব্রা ক্রসিং, রোড মার্কিংগুলো দৃশ্যমান ও স্থাপনের ব্যবস্থা করা। রোভার স্কাউট, রেড ক্রিসেন্ট, গার্ল গাইড, বিএনসিসি সদস্যদের ট্রাফিক কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করা।

মূল সড়কের পাশে অবস্থিত স্কুল কলেজের ক্লাস শুরু ও ছুটির সময়ে ওই এলাকায় ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন এবং যথাযথ ট্রাফিক সাইন স্থাপন করা।

দ্রুতগতির যানবাহন, বেপরোয়া গতি, হুটার, বিকন লাইট, উল্টো পথে চলাচলসহ সব প্রকার ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে বিশেষ ট্রাফিক অভিযান এবং ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম অব্যাহত রাখা।

ঢাকা মহানগরী এলাকার গুরুত্বপূর্ণ ২৯টি পয়েন্টে চেকপোস্ট কার্যক্রম অব্যাহত রাখা। গুরুত্বপূর্ণ ৩০টি ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহারে পথচারীদের উদ্বুদ্ধকরণে পুলিশ সদস্য মোতায়েন কার্যক্রম অব্যাহত রাখা।

গাড়ি চালানোর সময় স্টপেজ ব্যতীত সব সময় গাড়ির দরজা বন্ধ রাখার ব্যবস্থা গ্রহণ।

জেব্রা ক্রসিং এর আগে ‘STOP’ লাইন বরাবর গাড়ি থামানো ও স্টপেজ ছাড়া যত্রতত্র গাড়ি থামানোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং বাম লেন ঘেঁষে নির্ধারিত স্টপেজে গাড়ি থামিয়ে যাত্রী ওঠানামা নিশ্চিত করা।

ভিডিও মামলার সংখ্যা বৃদ্ধি করা।

এর আগে মডেল করিডর হিসেবে ঘোষিত বিমানবন্দর থেকে শহীদ জাহাঙ্গীর গেট, ফার্মগেট, সোনারগাঁও, শাহবাগ, মৎস্য ভবন, কদম ফোয়ারা, পুরোনো হাইকোর্ট হয়ে জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত ভিআইপি সড়কের ইন্টারসেকশন সমূহে রিমোট কন্ট্রোল সরবরাহ নিশ্চিত করে স্বয়ংক্রিয় ও রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে সিগন্যাল পরিচালনা করা।

ফার্মগেট থেকে সাতরাস্তা পর্যন্ত রাস্তাটিকে গাড়ি চলাচলের জন্য উন্মুক্ত রাখা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ/এসআই