.ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৯ ১৪২৬,   ১৭ শা'বান ১৪৪০

টেলিটকের ফোরজি চালু কোন কোন এলাকায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৯:২৪ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৯:২৪ ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

অবশেষে চতুর্থ প্রজন্মের ইন্টারনেট সেবা (ফোরজি) চালু করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক। দেশে ফোরজি চালুর প্রায় ১০ মাস পর বিজয় দিবসে এই সেবা চালু করে টেলিটক। এর আগে গত মে ও আগস্ট মাসে দুই দফা ফোরজি সেবা চালু করার উদ্যোগ নিলেও তাতে সফল হয়নি প্রতিষ্ঠানটি।

শুরুতে রাজধানীর গুলশান, নিকেতন, বনানী, বারিধারা, মতিঝিল, রমনা, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি, শ্যামলী, ফার্মগেট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বুয়েট এলাকায় টেলিটকের ফোরজি সেবা চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহাব উদ্দিন। তিনি বলেন, আমরা প্রতিদিন ৩০টি বিটিএসে (টাওয়ারে) ফোরজি কাভার করতে পারছি। সে হিসেবে আগামী ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে ঢাকার সব স্থানে টেলিটকের ফোরজি সেবা পাওয়া যাবে। এছাড়া চট্টগ্রামে দুই সপ্তাহের মধ্যেই ফোরজি পৌঁছে যাবে।

ফোরজি চালু হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে টেলিটকের প্রকল্প পরিচালক রেজাউল কবির বলেন, বাণিজ্যিকভাবে টেলিটকের ফোরজি সেবা চালু করা হয়েছে। প্রথম এই সেবা ঢাকার কয়েকটি অঞ্চলে পাওয়া যাচ্ছে। টেলিটকের গ্রাহকরা খুব শিগগির দেশের সব জায়গা থেকে ফোরজি সেবা পাবেন।

টেলিটকের দাবি, যেখানে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) ফোরজির গতি ন্যূনতম ৭ এমবিপিএস নির্ধারণ করেছে। সেখানে টেলিটকের ফোরজি ব্যবহার করে গ্রাহকরা ৪০ এমবিপিএস ডাউনলোড স্পিড ও ১৫ এমবিপিএস আপলোড স্পিড পাবেন।

এর আগে চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে লাইসেন্স পেয়ে ফোরজি সেবা চালু করে দেশের তিনটি  বেসরকারি মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক। বিটিআরসির সর্বশেষ প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী দেশে মোট সক্রিয় মোবাইল ফোন গ্রাহক ১৫ কোটি ৬৪ লাখ ৬৯ হাজার। যার মধ্যে টেলিটকের সক্রিয় গ্রাহক সংখ্যা মাত্র ৩৪ লাখ ৯৩ হাজার। যা মার্কেট শেয়ারের মাত্র দুই শতাংশ। ৭ কোটি ২০ লাখ ৫ হাজার গ্রাহক নিয়ে সবার উপরে আছে গ্রামীনফোন। অন্যদিকে রবির গ্রাহক সংখ্যা ৪ কোটি ৭১ লাখ ৬২ হাজার আর বাংলালিংকের গ্রাহক সংখ্যা ৩ কোটি ৩৮ লাখ ৯ হাজার।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস