ঢাকা, শুক্রবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ১০ ১৪২৫,   ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪০

পার্ট-০১

বিএফডিসির এত অনিয়ম, দেখার কী কেউ নেই?

যাহিন ইবনাত

 প্রকাশিত: ১০:৩৩ ১২ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১২:৩৯ ১৩ অক্টোবর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সংক্ষেপে ‘বিএফডিসি’। বাংলাদেশ ফিল্ম ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন। আমাদের দেশের একমাত্র সিনেমার প্রাণকেন্দ্র এবং চলচ্চিত্রের উন্নয়ন দেখাশোনার একমাত্র প্রতিষ্ঠান এটি। রাজধানীর তেজগাঁও এলাকায় এক বিরাট জায়গা নিয়ে অবস্থান করছে এটি। চলচ্চিত্র শুরুর প্রথম ধাপে এই জায়গাতেই বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বিশাল সফল সিনেমাগুলোর শুটিং হতো। সেই সময় বহু জনপ্রিয় ছবির লোকেশনই ছিল এই বিএফডিসি।

আর এখন এতে কালে ভাদ্রে দুই-একটি সিনেমার শুটিং হয়। গেলো ঈদে চোখে পড়ার মত শাকিব-বুবলীর ক্যাপ্টেন খান-এর শুটিং হয় বিএফডিসিতে। কিন্তু তারপরে আর কোন উল্লেখযোগ্য কাজ হয়নি এতে। তবে এতদিন পরে এসে আবারো বুবলীকে নিয়ে শাকিব খান কালপ্রিট-এর শুটিং শুরু করেছেন বিএফডিসিতে। অনেকদিন অন্তর অন্তর এক দুটি ছবির শুট এখানে হলেও আগের সেই আমেজ আর নেই।

বিএফডিসিতে বর্তমানে সিনেমার শুটিং প্রায় শূন্যের পর্যায়েই নেমে এসেছে। তারপরেও চলচ্চিত্রের কেন্দ্রবিন্দু বলা হয় এই এটিকে। তাছাড়া বর্তমানে দেশের চলচ্চিত্রশিল্প অনেক পিছিয়ে, যার প্রভাবও পড়েছে বিএফডিসিতে।

দ্বিতীয় পর্বটি পড়ুন এখানে

তবে সিনেমার শুটিং না হওয়ার পেছনেও যথেষ্ট কারণ রয়েছে বিএফডিসিতে। যা বেরিয়ে এসেছে ডেইলি বাংলাদেশের নিজস্ব প্রতিবেদকের অনুসন্ধানে।

বিএফডিসিতে যত সমস্যা:

মেকআপ রুমে নেই হাতল

এর ছাদ হয়ে গেছে ভঙ্গুর রংচটা

নেই আধুনিক লাইট ও মেকআপ বক্স

নেই ভালো কোন ক্যান্টিন

নেই ভালো কোন ওয়াশ রুম

তাছাড়া নেই কোন প্রয়োজনীয় সিকিউরিটি ব্যবস্থা

এদিকে, রোজার ঈদে শুটিং করতে গিয়ে এসব সমস্যার মুখে পড়েন দেশের শীর্ষ নায়ক চিত্র নায়ক শাকিব খান। এই বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলার এক পর্যায়ে তিনি ডেইলি বাংলাদেশকে অভিযোগ করে বলেন, বিএফডিসির কি এখন বাজেট সংকট? গ্রিনরুমের এ অবস্থা থাকে কেন? বিশ্বের অন্য সব জায়গা এগিয়ে যাচ্ছে, আমরা পিছিয়ে পড়ছি। তারা তো চাইলে টলিউড, বলিউডের শুটিং স্পটগুলো ঘুরে আসতে পারেন। ওই সব দেশের ব্যবস্থাপনা দেখলেইতো একটা ধারণা জন্মায়।

তাছাড়া বিএফডিসির সিকিউরিটি ব্যবস্থা দেখে আরো বেশি অবাক হয়েছেন এই কিং খান। গত ঈদে (ঈদুল ফিতর) যখন তিনি শুটিং করছিলেন, তখন নাকি যে কেউ এসে তার সঙ্গে সেলফিতে মগ্ন হয়ে পড়েছিলেন। শাকিবের প্রশ্ন, বিএফডিসিতে বাইরের কেউ সহজে প্রবেশ করতে পারে না। তাহলে এরা কারা? বিষয়টি রীতিমত অবাক করেছে শাকিব খানকে। তবে বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলতে চাননি তিনি। কারণ এই ভক্তদের জন্যই তিনি মনে করেন, আজ ঢালিউড কিং খান হতে পেরেছেন।

এদিকে, এই অনিয়ম দ্রুত নিরসন করা প্রয়োজনও মনে করেন  শাকিব খান। তার ভাষ্য, বিএফডিসির যত অনিয়ম, তা দ্রুত ঠিক করা না গেলে হুমকির মুখে পড়বে বাংলা চলচ্চিত্র। তাছাড়া ভালো ভালো শিল্পীর আনাগোনা কমে যাবে বিএফডিসিতে। 

দ্বিতীয় পর্বটি পড়ুন এখানে

[বিএফডিসির এত অনিয়ম, দেখার কী কেউ নেই-এর পার্ট ২ পড়তে চোখ রাখুন আগামী কালকের বিনোদন ক্যাটাগরি]

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআই