.ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৬ ১৪২৫,   ১৪ রজব ১৪৪০

জয়পুরহাটে নিষিদ্ধ ইউক্যালিপটাস বিক্রি

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৩:১৩ ১২ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৩:১৩ ১২ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জয়পুরহাট বনবিভাগ পরিবেশের ক্ষতিকর ইউক্যালিপটাস গাছ উৎপাদন, বনায়ন বিতরণ ও বিক্রি বন্ধ করে দেয় গত ২০১৪ সালের শেষের দিকে। কিন্তু তাতে কি ইউক্যালিপটাস বৃক্ষ উৎপাদন বন্ধ নেই। বরং জেলা থেকে উপজেলা ছাড়িয়ে এখন প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে নিরবে উৎপাদন, বিক্রি ও বনায়ন করে চলেছে ইউক্যালিপটাস চারা গাছ বেসরকারি নার্সারি মালিকরা। অথচ ২০০৮ সালে সরকার পরিবেশের ক্ষতির কারণ দেখিয়ে নিষিদ্ধ করে এই গাছটি। 

এ বিষয়ে জয়পুরহাট জেলার বনবিভাগ কর্মকর্তা ফরেস্ট রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. আনিছুর রহমান বলেন, ইউক্যালিপটাস চারা উৎপাদন বিক্রি ও বানায়ন করা যাবেনা এমন কোন সু-নির্দিষ্ট আইন ফরেস্ট ম্যানুয়ালে নেই। এমনকি ফরেস্ট গবেষণার উচ্চ পর্যায় থেকেও এ গবেষণামূলক কোন তথ্য দেয়া হয়নি। তবে সরকার যেহেতু নিষিদ্ধ করেছে সেক্ষেত্রে এই চারা উৎপাদন, বিক্রি ও বনায়নের ক্ষেত্রে আমরা সবাইকে নিরুৎসাহী করছি। 

এ প্রসঙ্গে রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ড. সুনীল কুমার কুন্ডু বলেন, অতিরিক্ত পানি শোষণের কারণে ইউক্যালিপটাসকে পরিবেশের বিরূপ গাছ বলা হয়। তবে দ্রুত বেশি টাকা হাতে আসে বলে এ গাছ রোপণে আগ্রহী মানুষ। জয়পুরহাটসহ উত্তরাঞ্চলের মহাসড়ক জুড়ে ইউক্যালিপটাস গাছের ব্যাপক উপস্থিতি এর প্রমাণ মেলে। উদ্ভিদবিদরা জানান, আশির দশকে দেশে এ গাছের প্রসার ঘটে।

এটি মূলত মরু অঞ্চলের গাছ। গাছটি মাটি থেকে বেশি পানি ও খাবার শোষণ করে। জয়পুরহাট সরকারি ডিগ্রী কলেজের উদ্ভিদ বিভাগের প্রভাষক তৌফিকুর রহমান সরকার বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য নষ্টের জন্য দায়ী করা হয় ইউক্যালিপটাসকে। চাহিদা দাম ও জ্বালানি হিসেবে যতই ভাল হোক না কেন সর্বোপরি মানুষ ও পরিবেশের ভারসাম্যের কথা চিন্তা করে সরকার এই বৃক্ষকে ২০০৮ সালে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। তবে বাস্তবে দেশব্যাপী ক্ষতিকর এ গাছের চারা উৎপাদন, বিপণন ও বনায়ন মূলোৎপাটন করবে এমনটাই আশাবাদী সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও সচেতন মহল।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

শিরোনাম

শিরোনামচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (চাকসু) নির্বাচনের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ শিরোনামসাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে ভারতের কাছে ৪-০ গোলে হেরে বাংলাদেশের বিদায় শিরোনামবাসচাপায় আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ হাইকোর্টের শিরোনামযশোরের শার্শায় পিকআপ ভ্যানচাপায় স্কুলছাত্রীর পা বিচ্ছিন্ন শিরোনামরাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় বিইউপির ছাত্র নিহতের প্রতিবাদে প্রগতি সরণিসহ কয়েকটি সড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ; নিরাপদ সড়কের দাবিতে শাহবাগে ঢাবি শিক্ষার্থীদের অবস্থান শিরোনামসিঙ্গাপুরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সফলভাবে বাইপাস সার্জারি সম্পন্ন শিরোনামক্রাইস্টচার্চ হামলা: নিহতদের দাফন শুরু; এখনো হস্তান্তর হয়নি সব মরদেহ শিরোনামঢাকা-কলকাতা জাহাজ সার্ভিস চালু ২৯ মার্চ