Alexa জোয়ার-ভাটায় চলে শিক্ষা কার্যক্রম

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ২৭ ১৪২৬,   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

জোয়ার-ভাটায় চলে শিক্ষা কার্যক্রম

আবদুল মালেক, বোরহানউদ্দিন ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:০৪ ১৮ অক্টোবর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ভোলার বোরহানউদ্দিনের ৫ নম্বর উত্তর-পূর্ব বাটামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি নদীর তীরে হওয়ায় শিক্ষা কার্যক্রমে জেয়ার-ভাটার ওপর নির্ভর করতে হয়। জোয়ার আসার আগেই ছুটি দিতে হয়। আর একটু মেঘ দেখলেই আতঙ্কিত হয়ে পড়ে শিক্ষার্থীরা।

মেঘনার ভাঙনে বিদ্যালয়টির মাঠের অনেক অংশ বিলীন হয়ে যায়। এছাড়া এখানে শিক্ষার্থীদের খেলার মাঠ নেই, দূর থেকে আনতে হয় খাবার পানি, ভবনটি অনেক পুরাতন হওয়ায় ছাদ খসে পড়েছে, ৩৪০ শিক্ষার্থীর বিপরীতে রয়েছেন মাত্র চার শিক্ষক। পাঁচ বছর ধরেই পাঁচ সহকারী শিক্ষকের পদ শূন্য।

পঞ্চম শ্রেণির ফাতেমা বেগম, চতুর্থ শ্রেণির নুর নাহারসহ অনেক শিক্ষার্থী জানায়, বর্ষায় জুতা হাতে নিয়ে স্কুলে আসতে হয়। জোয়ার এলে স্কুল ছুটি দেয়। পানি খেতে পারি না। মেঘ দেখলেই অনেক ভয় পাই।

তারা আরো জানায়, মেঘনার ভাঙনে আমাদের বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশ বিলীন হয়ে যায়। এখানে পড়াশোনার ভালো ব্যবস্থা নেই।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হক বলেন, নানা সংকটে বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। নদীর তীরে বিদ্যালয়টি থাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না। জোয়ার-ভাটার ওপর অনেকটা নির্ভরশীল।

তিনি আরো বলেন, বিষয়গুলো স্থানীয় এমপিকে জানিয়েছি। তিনি দ্রুত বেড়িবাঁধে একটি নতুন ভবন করে দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

উপজেলা প্রকৌশলী গাইন কুমার জানান, বিদ্যালয়টি নদীর তীরে ও বেড়িবাঁধের বাইরে হওয়ায় সংস্কার করা যাবে না। তাই নতুনভাবে বেড়িবাঁধে নির্মাণের টেন্ডার হয়েছে। টেন্ডার অনুমোদন পেলে দ্রুত কাজ শুরু হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর