Alexa জেনে নিন জাবিতে কত মেরিট পর্যন্ত চান্স

ঢাকা, শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৪ ১৪২৬,   ২০ সফর ১৪৪১

Akash

জেনে নিন জাবিতে কত মেরিট পর্যন্ত চান্স

জাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:২২ ৬ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৩:২৪ ৬ অক্টোবর ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শেষ হয়েছে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা। ফলে মেধা তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু কোন বিভাগে ও ইউনিটে কত মেরিট পজিশনে থাকলে চান্স পাওয়া যাবে।

এসব প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্বের শিক্ষার্থী মো. মহব্বত হোসেন।

প্রতিটি ইউনিটের ভাইভা হতে পারে অক্টোবরের শেষের দিকে অথবা নভেম্বরের ১ম দিকে। ১ম দফায় আসন সংখ্যার ৫ গুণ পজিশন পর্যন্ত ভাইভায় ডাকতে পারে। ‘সি১’ এবং ‘জি’ ইউনিট ছাড়া বাকি ইউনিটগুলোর ভাইভায় কোনো মার্ক নেই।  মানে আপনাকে বাদ দেয়ার কোনো চান্স নাই। শুধু উপস্থিত থাকতে হবে আর কি।

যদিও কোনো বিভাগে ও ইউনিটে কত মেরিট পজিশনে থাকলে চান্স পাওয়া যাবে সেটা ভাইভার আগে অনুমান করে বলাটা খুব কঠিন তারপরেও গত ৪ বছরের অভিজ্ঞতা ও এবারের প্রেক্ষাপটের কথা ভেবে একটা তালিকা চলুন দেখে নেয়া যাক।

‘এ’ ইউনিটে (গাণিতিক ও পদার্থ বিষয়ক অনুষদ) ছাত্রদের ১৮০০ ও ছাত্রীদের ৮০০ পর্যন্ত, ‘বি’ ইউনিটে (সমাজবিজ্ঞান অনুষদ) ছাত্রদের ৩২০ ও ছাত্রীদের ২৮০ পর্যন্ত, ‘সি’ ইউনিটের (কলা ও মানবিকী অনুষদ) বিজ্ঞান শাখায় ছাত্রদের ১৫০ ও ছাত্রীদের ১৪০ পর্যন্ত, মানবিক শাখায় ছাত্রদের ১৪০ ও ছাত্রীদের ১২০ পর্যন্ত এবং বাণিজ্য শাখায় ছাত্রদের ৩০ ও ছাত্রীদের ৩০ পর্যন্ত, ‘ডি’ ইউনিটে (জীববিজ্ঞান অনুষদ) ছাত্রদের ৮০০ ও ছাত্রীদের ৭০০ পর্যন্ত, ‘ই’ ইউনিটে (বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ) ছাত্রদের ১৪০ ও ছাত্রীদের ১২৫ পর্যন্ত, ‘এফ’ ইউনিটে (আইন অনুষদ) ছাত্রদের ৪৫ ও ছাত্রীদের ৪০ পর্যন্ত, ‘এইচ’ ইউনিটে ( ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজি-আইআইটি) ছাত্রদের ১০০ ও ছাত্রীদের ৭০ পর্যন্ত এবং ‘আই’ ইউনিটে (বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইনস্টিটিউট) ছাত্রদের ৩০ ও ছাত্রীদের ২৫ পর্যন্ত শতভাগ চান্স হবে।

অপরদিকে ‘এ’ ইউনিটে ছাত্রদের ১৮০১ থেকে ৩০০০ ও ছাত্রীদের ৮০১ থেকে ১৫০০ পর্যন্ত, ‘বি’ ইউনিটে ছাত্রদের ৩২১ থেকে ৪৫০ ও ছাত্রীদের ২৮১ থেকে ৪০০ পর্যন্ত, ‘সি’ ইউনিটের বিজ্ঞান শাখায় ছাত্রদের ১৫১ থেকে ৩৫০ ও ছাত্রীদের ১৪১ থেকে ৩০০ পর্যন্ত, মানবিক শাখায় ছাত্রদের ১৪১ থেকে ৩০০ ও ছাত্রীদের ১২১ থেকে ২৫০ পর্যন্ত এবং বাণিজ্য শাখায় ছাত্রদের ৩১ থেকে ৮০ ও ছাত্রীদের ৩১ থেকে ৭০ পর্যন্ত, ‘ডি’ ইউনিটে ছাত্রদের ৮০১ থেকে ১৫০০ ও ছাত্রীদের ৭০১ থেকে ১৩০০ পর্যন্ত, ‘ই’ ইউনিটে ছাত্রদের ১৪১ থেকে ২৫০ ও ছাত্রীদের ১২৬ থেকে ২২০ পর্যন্ত, ‘এফ’ ইউনিটে ছাত্রদের ৪৬ থেকে ১০০ ও ছাত্রীদের ৪১ থেকে ৯০ পর্যন্ত, ‘এইচ’ ইউনিটে ছাত্রদের ১০১ থেকে ২৫০ ও ছাত্রীদের ৭১ থেকে ১৫০ পর্যন্ত এবং ‘আই’ ইউনিটে ছাত্রদের ৩১ থেকে ৮০ ও ছাত্রীদের ২৬ থেকে ৭০ পর্যন্ত ওয়েবসাইটে যোগাযোগ রাখবেন। ভাগ্য সহায় হলে চান্স হতেও পারে।

এই পজিশনের বাইরে যারা আছেন তাদের কোটা না থাকলে জাবির আশা ছেড়ে দেয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম