Alexa জুভেন্টাসকে তচনচ করে চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা রিয়ালের কবজায়

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ৫ ১৪২৬,   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

জুভেন্টাসকে তচনচ করে চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা রিয়ালের কবজায়

 প্রকাশিত: ১০:৪৫ ৪ জুন ২০১৭   আপডেট: ১৮:২৭ ১ অক্টোবর ২০১৯

ইতালীয় জায়ান্ট জুভেন্টাসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ রিজেদের করেই রাখলো স্পেনিশ ফুটবল পরাশক্তি রিয়াল মাদ্রিদ। ৪-১ ব্যবধানে জুভিদের কাঁদিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা দখলে রেখে রেকর্ডবুকে নাম লেখালো কোচ জিনেদিন জিদানের রিয়াল মাদ্রিদ। অপর,দিকে বর্তমানের কিংবদন্তীসম ইতালীয় গোলরক্ষক বুফনের আক্ষেপটাও দীর্ঘায়িত হলো। প্রথমার্ধে ১-১ সমতার পর দ্বিতীয়ার্ধে খেই হারানো জুভিদের জালে আরও তিনবার বল পাঠায় গ্যালাকটিকোরা।

জোড়া গোলে রাতটি অবিস্মরণীয় করে রাখেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ওরফে সিআর সেভেন। প্রথমার্ধে রোনালদো রিয়ালকে এগিয়ে নেওয়ার পর সমতা ফিরিয়েছিলেন জুভেন্টাসের মারিও মানজুকিচ। দ্বিতীয়ার্ধে কাসেমিরোর গোলে আবার এগিয়ে যাওয়ার পর রোনালদোর দ্বিতীয় গোলে দ্বাদশ শিরোপা জয় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায় রিয়ালের। শেষ মুহূর্তে মার্কো আসেনসিওর গোলে ব্যবধান বেড়ে দাঁড়ায় ৪-১। ফলে বিশাল জয়ই তুলে নেয় স্পেনের সবচেয়ে সফল ক্লাবটি। কার্ডিফের প্রিন্সিপালিটি স্টেডিয়ামে শনিবার রাতে শুরুটা অবশ্য ভালোই করেছিল ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। চতুর্থ মিনিটে আর্জেন্টাইন হিগুয়াইনের দূরপাল্লার শট ফেরাতে একটু বেগ পেতে হয় কেইলর নাভাসকে।

দুই মিনিট পর মারিও মানজুকিচের ক্রসে মিরালেম পিয়ানিচের দূরপাল্লার জোরালো শট ডানে ঝাঁপিয়ে দুর্দান্ত সেভ করেন কোস্টা রিকার এই গোলরক্ষক। এ নিয়ে ইউরোপ সেরার আসরে তিনটি ফাইনালে গোল পেলেন রোনালদো। প্রথম দল হিসেবে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ৫০০ গোলও হলো রিয়ালের। সবচেয়ে বড় হতাশাটা হয়তো ম্যাচ শেষে কান্নায় ভেঙে পড়া বুফ্ফনের। ফাইনালের আগে টুর্নামেন্টে মাত্র ৩ গোল খাওয়া এই ইতালিয়ানের প্রতিরোধ ভেঙে পড়লো দুর্দান্ত রিয়ালের সামনে। তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেও একবারও শিরোপার দেখা পেলেন না বর্ষীয়ান এই গোলরক্ষক।

০১৬৮৬ ৫৩১ ০০৩