জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে বিধবা ভাতা কার্ড করে দিলেন চেয়ারম্যান
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=193806 LIMIT 1

ঢাকা, বুধবার   ১২ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৮ ১৪২৭,   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে বিধবা ভাতা কার্ড করে দিলেন চেয়ারম্যান

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪২ ১৩ জুলাই ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে রওশানারা বেগম নামে এক নারীকে বিধবা ভাতা কার্ড দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার ৬ নম্বর দৌলতপুর ইউপির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কুশলপুর গ্রামের আকবর আলী নামে এক ব্যক্তি জীবিত থাকলেও তাকে কাগজে কলমে মৃত দেখিয়ে তার  স্ত্রী রওশানারা বেগমের নামে বিধবা ভাতার কার্ড করে দেয়া হয়।

রওশানারার বিধবা ভাতার কার্ড নম্বর ২৯০৯। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মন্ডলের সমর্থক হওয়ায়, স্বামী জীবিত থাকলেও ওই নারীর নাম বিধবা ভাতায় অন্তর্ভুক্ত করেছেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

ফুলবাড়ী উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বিধবা ভাতা পাবেন যাদের স্বামী মারা গেছেন (বিধবা ) বা স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হওয়া নারীরা। ইউপি পর্যায়ে ওই এলাকার সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানকে সভাপতি করে বিধবা ভাতার সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রণয়নের জন্য কমিটি রয়েছে। সেই কমিটি তালিকা তৈরি করে উপজেলা কমিটিতে পাঠাবেন। এরপর উপজেলা কমিটি তালিকা যাচাই করে অনুমোদনের পর ভাতা কার্ড প্রদান করবেন। 

এদিকে স্বামী আকবর আলী জীবিত থাকলেও রওশানারা বেগম কিভাবে বিধবা ভাতার কার্ড পেলেন তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন আকবর আলীর ছেলের স্ত্রী আলতা বানু। 

আলতা বানু বলেন, দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান তার জীবিত শ্বশুরকে মৃত দেখিয়ে তার শাশুড়িকে বিধবা ভাতার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকার লোকজন অভিযোগ তুললে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মন্ডল সেই ভাতার কার্ডটি সংশোধন করবেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ মন্ডল বলেন, ভুলে বয়স্ক ভাতার পরিবর্তে বিধবা ভাতার কার্ড দেয়া হয়েছে, বিষয়টি এরইমধ্যে সংশোধন করা হয়েছে ।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আখতারুজ্জামান জানান, রওশানারা বেগমের স্বামী, আকবর আলীকে ভাতার কার্ডে মৃত দেখানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা এই ভাতা পেতে পারে। তবে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে ভাতার কার্ড দেয়ার বিষয়টি দুঃখজনক। রওশানারা বেগমের তালিকাভুক্ত হওয়ার বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। 

এ বিষয়ে ইউএনও কানিজ আফরোজ (সহকারী কমিশনার ভূমি) বলেন, বিষয়টি আমি জানি না, আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। তবে অভিযোগটি তদন্ত করে দেখা হবে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে । 

ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন বলেন, বিষয়টি আমিও অবগত হয়েছি, তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তবে এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটে থাকলে সংশ্লিষ্ট ইউপির চেয়ারম্যানকে এর দায়ভার বহন করতে হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ