জিনের বাদশার সাত কলস গুপ্তধনের লোভে সর্বহারা কৃষক

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৫ ১৪২৭,   ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জিনের বাদশার সাত কলস গুপ্তধনের লোভে সর্বহারা কৃষক

নিউজ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৪৯ ২১ জুন ২০১৯  

জিনের বাদশার গুপ্তধনের লোভে পড়ে সর্বস্বান্ত ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার উত্তর হরিহরপুর গ্রামের এক কৃষক। তিনি এই লোভে পড়ে জমি ও গরু বিক্রির আড়াই লাখ খুইয়েছেন।

পরিবারটি জানায়, গত ১৬ মে রাত ১২টার দিকে এক প্রতারক কণ্ঠ বিকৃত করে সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের উত্তর হরিহরপুর গ্রামের দরিদ্র কৃষক মো. বাবুর মোবাইলে ফোন দেয়। প্রতারক ফোনে বলে, বগুড়ার শাহ সুলতান বলখী (র.) এর মাজারে গুপ্তধন আছে। এই গুপ্তধন পাইতে গেলে মাদরাসা ও মসজিদ তৈরি করতে হবে। এর নাম করে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক।

এর কয়েকদিন পর কথিত জিনের বাদশা আরও টাকা দাবি করে। টাকা দিলে পরিবারটিকে সাত কলস গুপ্তধন ও একটি সোনার মূর্তি পাওয়ার আশ্বাস দেয়। এভাবে ২২ মে আরও ২ লাখ হাতিয়ে নেয় প্রতারক।

পরদিন রাতে ঠাকুরগাঁও শহরের বাস টার্মিনালঘেষা আদর্শ কলোনি সড়কে একটি নিদিষ্ট স্থানে স্বর্ণের আবরণে একটি পুতুল কৃষক পরিবারটিকে নিয়ে যেতে বলে প্রতারক। পুতুলটি ওই স্থান থেকে তুলে নিয়ে প্রথমে খুশি হলেও পরে দেখেন এটি অন্য কোনো ধাতুর তৈরি মূর্তি। এরপর থেকে জিনের বাদশার মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। তবুও সন্দেহ মেটাতে পুতুলটি স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের কাছে পরীক্ষা করে জানতে পারেন ওটা অন্য কোনো ধাতুর ওপর স্বর্ণের প্রলেপ দেয়া।

সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান জানান, বিষয়টি শুনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম