জিততে পারার আত্মবিশ্বাস থেকেই জিতেছি: মিরাজ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২০ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৬ ১৪২৬,   ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

জিততে পারার আত্মবিশ্বাস থেকেই জিতেছি: মিরাজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৭:৪০ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৭:৪০ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

বিপিএল ষষ্ঠ আসরে রংপুর রাইডার্সকে পাঁচ রানে হারিয়েছে রাজশাহী কিংস। মিরাজের নেতৃত্বে রাজশাহী দারুণ এক জয় পেয়েছে। মাশরাফীর রংপুরের বিপক্ষে জয়কে বড় করেই দেখছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তার মতে মাশরাফীদের বিপক্ষে জিততে পারার আত্মবিশ্বাস থেকেই জয়টা পেয়েছি।

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে রাজশাহী কিংসের দল দেখে কেউ ভাবতেই পারেনি দল বড় সাফল্য পেতে পারে। কেননা দলে মুমিনুল হক, সৌম্য সরকার, মোস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসানের মতো ক্রিকেটাররা থাকলেও টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা হতাশ করেছে রাজশাহীকে। তাই তো খুলনার বিপক্ষে নিজেই উপরে গিয়ে ব্যাটিং করেন অধিনায়ক মিরাজ। আর তাতেই সাফল্যের দেখা পায় রাজশাহী কিংস।

খুলনার পর শক্তিশালী দল রংপুর রাইডার্সকেও হারিয়েছে মিরাজের রাজশাহী। আগে ব্যাট করে ১৩৫ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী। রংপুরের ব্যাটিংলাইন দেখে কিন্তু সহজেই জেতার কথা কোনো দলের মাথায় আসে না। সেই অসাধ্যকে সাধন করে প্রমাণ দিয়েছে রাজশাহী। শেষ ওভারে মোস্তাফিজের জাদুকরী স্পেলে পাঁচ রানের জয় পায় রাজশাহী। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মিরাজ জানান, জিততে পারার আত্মবিশ্বাস থেকেই জয় পেয়েছি আমরা।

‘কখনো ভয় লাগেনি। দিন শেষে এটা একটা খেলাই। যারা ভালো খেলবে তারা জিতবে। অবশ্যই রংপুর ভালো দল। অনেক অভিজ্ঞ মাশরাফী ভাই। অনেকবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন বিপিএল ও অন্যান্য টুর্নামেন্টে। যারা আমরা জুনিয়র আছি, বিশ্বাস ছিল ফিরে আসতে পারব। জিততে পারব। এই আত্মবিশ্বাস দিয়েই আমরা জিতেছি। রান কিন্তু বেশি হয়নি আমাদের। ১৩৬ লক্ষ্য ছিল। আমাদের বিশ্বাস ছিল আমরা জিততে পারব, ঘুরে দাঁড়াতে পারব। এ কারণেই জিতেছি।’

এবারের আসরে অন্যান্য দলের তুলনায় মিরাজরা একটু বেশিই তরুণ। দুই-একজন সিনিয়র খেলোয়াড় থাকলেও বেশিরভাগই তরুণ ক্রিকেটার। আর এই তরুণদের সম্মিলিত দলটি গেইল-মাশরাফী-রুশো-মিঠুনদের হারানোতে জয়ের স্বাদটা একটু অন্যরকমই লাগার কথা।

মেহেদী মিরাজ বলেন, ভালো লাগারই কথা। মাশরাফী ভাই আমাদের বড় ভাই। রংপুর চ্যাম্পিয়ন টিম। ওদের হারাতে পেরে দলের সবার ভালো লাগছে। অন্যরকম অনুভূতি কাজ করছে। আর ভালো দলকে হারাতে পারলে সেটা অন্য রকম আনন্দ দেয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে