Alexa জাল সার্টিফিকেটে প্রধান শিক্ষক, নিয়োগের নামে বাণিজ্য

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ৭ ১৪২৬,   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

জাল সার্টিফিকেটে প্রধান শিক্ষক, নিয়োগের নামে বাণিজ্য

বিষ্ণুপদ রায়, পীরগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:২৭ ২৮ অক্টোবর ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঠাকুরগাওয়ের পীরগঞ্জে এক ভুয়া প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুলের সাইনবোর্ড লাগিয়ে শিক্ষক নিয়োগের নামে অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত জাকির হোসেন ওই উপজেলার দৌলতপুর ইউপির আবদুস সালামের ছেলে। তিনি নিজেকে সাপ্তাহিক উত্তর কণ্ঠ নামের একটি পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক পরিচয় দেন।

এ ঘটনায় ইউএনও’র কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ফজল বাবলু।

অভিযোগে জানানো হয়েছে, জাকির হোসেন এসএসসি পাস করেননি। কিন্তু নকল ডিগ্রি সার্টিফিকেট বানিয়ে নিজেকে প্রধান শিক্ষক পরিচয় দিচ্ছেন তিনি। দৌলতপুর বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক স্কুলে শিক্ষক পদে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে প্রায় অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। স্কুলের কথা বলে নিজের বাবার নামে জমি কিনেছেন তিনি।

প্রতারণার শিকার সিংরোল গ্রামের লুৎফর রহমান, বথপালিগাঁওয়ের আরিফুল, মনসুরসহ কয়েকজন জানান, স্কুলের নামে সমাজসেবা অধিদফতর ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ভুয়া নিবন্ধন নম্বর দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন জাকির হোসেন।

অভিযোগকারী আবু ফজল বলেন, আমার বাড়ির পাশেই জাকিরের বাড়ি। ছোটবেলা থেকেই তাকে চিনি। জাকির অষ্টম শ্রেণিও পাস করেনি। সে জাল ডিগ্রি সার্টিফিকেট বানিয়ে নিজেকে প্রধান শিক্ষক দাবি করছে। স্থানীয়দের সঙ্গে প্রতারণা করছে। তার রোল, রেজিস্ট্রেশন নম্বর খুঁজে দেখা গেছে সার্টিফিকেটগুলো অন্যের নামে।

পীরগঞ্জের ইউএনও এ.ডব্লিউ.এম রায়হান শাহ বলেন, জাকির হোসেনের নামে আগে মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। এবার লিখিত অভিযোগ এসেছে। সমাজসেবা কর্মকর্তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিগগিরই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর