Alexa জার্মানিতে বাংলাদেশি তরুণী ব্লগারের লাশ উদ্ধার

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ২ ১৪২৬,   ১৭ মুহররম ১৪৪১

Akash

জার্মানিতে বাংলাদেশি তরুণী ব্লগারের লাশ উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

 প্রকাশিত: ০৬:০০ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ০৬:১৭ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

জার্মানির বার্লিনে গেসুন্ড ব্রুনেন এলাকায় একটি বাড়ির নিজ কক্ষ থেকে অর্পিতা রায় চৌধুরী নামের এক বাংলাদেশী তরুণী ব্লগারের লাশ উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ। ওই তরুণীর প্রকৃত নাম তমালিকা সিংহ। 

মঙ্গলবার রাতে খবর পেয়ে অর্পিতার লাশ উদ্ধার করে বার্লিন পুলিশ।

বুধবার রাতে অর্পিতার প্রতিবেশী এক বাংলাদেশি জানান, তমালিকার গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের নেত্রকোনায়। জার্মানি আসার আগে ঢাকায় বসবাস করতেন তিনি। দেশে থাকতে ব্লগে সমকালীন রাজনীতি ও ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে লেখালেখি করতেন তিনি। যার কারণে খুব দ্রুত মৌলবাদীদের টার্গেটে পরিণত হন অর্পিতা। ২০১৭ সালে জার্মানি লেখকদের সংগঠন পেন ক্লাবের বৃত্তি নিয়ে জার্মানিতে পাড়ি জমান তিনি। 

ওই প্রতিবেশী আরো জানান, কয়েক দিন ধরে অর্পিতার বাড়িতে আলো জ্বলতে না দেখে বিষয়টি ১৪ ডিসেম্বর পেন ক্লাবের স্থানীয় কর্মকর্তাদের জানান তিনি। এর চার দিন পর মঙ্গলবার বার্লিন পেন ক্লাবের একজন স্বেচ্ছাসেবক ওই বাড়ির অন্য একটি চাবি দিয়ে দরজা খুললে অর্পিতার লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। 

জার্মান পেন ক্লাবের মুখপাত্র ফেলিক্স হেলার অর্পিতার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে বলেন, এ ঘটনায় তারা অত্যন্ত মর্মাহত এবং বিমর্ষ। পুলিশের তদন্তের আগে কোনো কিছু বলা যাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

জানা যায়, জার্মান প্রবাসী আরেকজন বাংলাদেশি ব্লগার যোবায়ের সন্ধীর সঙ্গে যৌথভাবে ‘নবযুগ’ নামে একটি ব্লগ পরিচালনা করতেন তমালিকা। সম্প্রতি ‘অংশুমালী’ নামে একটি সাহিত্য ব্লগও শুরু করেন তারা।

পুলিশের বরাত দিয়ে জানানো হয়, তমালিকার মৃতদেহ ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি পুলিশ। 

ঘটনার তদন্ত চলছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মরদেহ দেশে নেয়া হবে কিনা এ ব্যাপারেও কোনো তথ্য জানা যায়নি।

লন্ডন প্রবাসী কবি ও লেখক আবু মকসুদ জানান, প্রগতিশীল চিন্তার মানুষ ছিলেন তমালিকা। শুধু মত প্রকাশের দায়ে নিজ দেশ বাংলাদেশে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলেন তিনি। তার পরিবারও তাকে নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন ছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআইএস