Alexa জাবির বঙ্গমাতা হল: দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে কয়েক ’শ শিক্ষার্থী

ঢাকা, সোমবার   ২২ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৭ ১৪২৬,   ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০

জাবির বঙ্গমাতা হল: দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে কয়েক ’শ শিক্ষার্থী

জাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০৫ ১২ জুলাই ২০১৯   আপডেট: ২০:২৬ ১২ জুলাই ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

তুলনামূলক কম দামে ভালো খাবার পাওয়া যায় বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাইনিং সব শিক্ষার্থীদের নিকট প্রিয়। কিন্তু ডাইনিংয়ে গ্যাস সংযোগ না থাকায় প্রতিষ্ঠার আড়াই বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো খাবারের জন্য নির্দিষ্ট ডাইনিং ব্যবস্থা গড়ে উঠেনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে। ফলে ওই হলের কয়েক ‘শ ছাত্রী হিটারের সাহায্যে রান্না করছেন। এতে একদিকে যেমন হলের বিদ্যুৎ বিল অধিকহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে অন্যদিকে ছাত্রীদের রয়েছে দুর্ঘটনার শঙ্কাও। যেকোনো সময় হিটারের আগুন বা বৈদ্যুতিক শট সার্কিট থেকে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। 

হলের ছাত্রীদের অভিযোগ, প্রশাসনের গাফিলতি এবং সুষ্ঠু নজরদারির অভাবে এখন পর্যন্ত গ্যাস সংযোগ দেয়া হয়নি। ফলে বিপাকে হলের কয়েকশ ছাত্রী।

জানা যায়, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। প্রতিষ্ঠার সময় থেকে প্রায় ৮৫০ জন ছাত্রী অবস্থান করছেন হলটিতে।  এতে ছাত্রীদের আবাসন ব্যবস্থা করার পরপরেই রান্নার জন্য গ্যাস সংযোগ ও খাবারের ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল হল প্রশাসন। কিন্তু প্রতিশ্রুতি দিয়েও তা রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে প্রশাসন। হলের ছাত্রীদের জন্য ক্যান্টিনের ব্যবস্থা থাকলেও ছিল না গ্যাস সংযোগ। গেল সপ্তাহে ক্যান্টিনে গ্যাস সংযোগ দিলেও ডাইনিংয়ে গ্যাস সংযোগের ব্যবস্থা করতে পারেনি প্রশাসন। এদিকে ক্যান্টিনের খাবার মূল্য অন্যান্য হলের ক্যান্টিনের থেকে বেশি বলে অভিযোগ ছাত্রীদের। ফলে ছাত্রীরা কোনো উপায় না পেয়ে খাবারের জন্য বটতলা (খাবারের নির্দিষ্ট স্থান) আসেন নয়তো হিটার ব্যবহার করে রান্না করেন। 

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের এক ছাত্রী বলেন, হল প্রশাসন উদাসীন। ডাইনিংয়ে গ্যাস সংযোগের বিষয়ে একাধিকবার অবগত করা হলেও আশানুরূপ কোনো উদ্যোগ নেননি। তাই দুর্ঘটনার শঙ্কা নিয়ে বাধ্য হয়ে হিটারে রান্না করি। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সরকার ও রাজনীতি বিভাগের এক আবাসিক ছাত্রী বলেন, হলে কোনও ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা নেই। ৪৬ ব্যাচের ছাত্রীদের থাকার জায়গা হিসেবে ডাইনিং রুম বরাদ্দ দিয়েছে প্রশাসন। ফলে দুর্ঘটনা ঝুঁকি নিয়ে আমার মতো অনেকে হিটারে রান্না করেন।  

বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের আবাসিক ছাত্রী নিগার সুলতানা বলেন, হলের ডাইনিংয়ে গ্যাস সংযোগ নেই। তাই নিরাপত্তা ঝুঁকি নিয়ে অনেকে হিটারের সাহায্যে রান্না করে। কারও কিছু হয়ে গেলে তার দায়ভার কে নেবে?

এদিকে ওই হলে গত বছরের শেষের দিকে হল প্রশাসন ছাত্রীদের থাকার জন্য ডাইনিং রুম বরাদ্দ দিয়েছে। এতে ডাইনিং চালুর যে সম্ভাবনা ছিল তা এখন আর সম্ভব নয় বলে মনে করছেন ছাত্রীরা। 

এ বিষয়ে হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান বলেন, গ্যাস সংযোগের লাইন প্রস্তুত আছে। এরই মধ্যে আমরা ক্যান্টিনে গ্যাসের সংযোগ দিয়েছি। এখন শুধু ডায়নিংয়ে লাইন সংযোগ দেয়া বাকি। আশা করি আগামী এক মাসের মধ্যে গ্যাস সংযোগের ব্যবস্থা হয়ে যাবে। 

ডায়নিংয়ে ৪৬ ব্যাচের ছাত্রীদের থাকার জায়গা বরাদ্দ করার বিষয়ে তিনি বলেন, যেসব ছাত্রীর পড়াশোনা শেষ তারা হল না ছাড়ায় আবাসন সংকট দূর হচ্ছে না। হল প্রশাসন খুবেই তৎপর। তারা হল ছেড়ে দিলেই ডাইনিংয়ে অবস্থানরত ছাত্রীদের রুম বরাদ্দ দেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ