Alexa জাপার সাংবাদিক সম্মেলন বয়কট গণমাধ্যমকর্মীদের

ঢাকা, সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ১ ১৪২৬,   ১৬ মুহররম ১৪৪১

Akash

জাপার সাংবাদিক সম্মেলন বয়কট গণমাধ্যমকর্মীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৩২ ১৭ আগস্ট ২০১৯  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

জাতীয় পার্টির সাংবাদিক সম্মেলন বয়কট করেছেন গণমাধ্যমকর্মীরা। শনিবার বেলা ১১টায় রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে পার্টির প্রেসিডিয়াম ও এমপিদের যৌথসভা উপলক্ষে এই সাংবাদিক সম্মেলনের আহ্বান জানানো হয়েছিল।

কিন্তু বেলা ১১টায় সাংবাদিক সম্মেলনের আহ্বান করেও দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত সাংবাদিকদের বসিয়ে রাখা হয়। এক পর্যায়ে গণমাধ্যমকর্মীরা বলেন, ৫ মিনিটের জন্য কথা বলে আমাদের ছেড়ে দেয়া হোক। আমাদের আরো অ্যাসাইনমেন্ট আছে। এসময় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহামদ রাজু সভাস্থলে উপস্থিত একজন দায়িত্বশীলকে ফোন দিয়ে জানান সাংবাদিকদের অন্য অ্যাসাইনমেন্ট আছে আর বসিয়ে রাখা ঠিক হচ্ছে না। তখন ফোনের অপরপ্রান্ত থেকে বক্তব্য আসে নাস্তা খাওয়ানো হয়েছে বসতে বলেন। জবাবে রাজু বলেন, নাস্তা খাওয়ায়ে ৩ ঘণ্টা বসিয়ে রাখা যাবে না, তারা খাওয়ার জন্য আসেনি। এই অবস্থায় সাংবাদিকরা বিব্রত হন এবং  জাপার সাংবাদিক সম্মেলন বয়কট করেন।

এ সময় সাংবাদিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জাতীয় পার্টির নেতারা প্রায়ই উদ্ভট কথা বলেন। এর আগেও রমজান মাসে হোটেল ওয়েস্টিনে কূটনৈইতিকদের সঙ্গে এরশাদের ইফতারের সংবাদ সংগ্রহের সময় বলা হয়েছিল; অনলাইন পত্রিকা, ছোট পত্রিকা ও কোনো ফটো সাংবাদিক অনুষ্ঠানে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। জাপার সমালোচনা ও ক্ষোভ প্রকাশের এক পর্যায়ে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীরা সাংবাদিক সম্মেলন করে স্থান ত্যাগ করেন।

এরপর জাতীয় পার্টির অফিস থেকে যমুনা টিভি, এসএ টিভি ও এটিএন বাংলার অফিসে ফোন করে সংবাদ সংগ্রহের জন্য অনুরোধ করা হয়। পরবর্তীতে এই তিনটি মিডিয়াকে ব্রিফ করেন পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা।

ব্রিফিংয়ে রাঙ্গা বলেন, চামড়া নিয়ে যারা কারসাজি করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। এছাড়া শুক্রবার চলন্তিকা বস্তিতে যে আগুনের ঘটনা ঘটেছে এতে হতদরিদ্র মানুষ ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। উন্নত রাষ্ট্র বাস্তবায়ন করতে অসহায় এই ঘর পোড়া মানুষগুলোকে স্থায়ী পুনর্বাসন করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী একটি কমিটি গঠন করা হবে। এই কমিটি জাতীয় পার্টির সংবিধান অনুযায়ী রংপুর-৩ আসনের উপ নির্বাচনে প্রার্থী চূড়ান্ত করবে। একই সঙ্গে ওই কমিটিই সিদ্ধান্ত দেবে কে হবেন সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা।

বিনামূল্যে ডেঙ্গু রোগ চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়ে জাপা মহাসচিব বলেন,যারা সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদের এবং যারা প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদেরও চিকিৎসা বিনামূল্যে দিতে হবে।

রাঙ্গা জানান, আজকের সভা সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ৩১ আগস্ট সারাদেশে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের চল্লিশা পালন হবে। যদিও ৪০ দিন ২৩ আগস্ট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল কিন্তু হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় উৎসব জন্মাষ্টমীর কারণে এটি পিছিয়ে ৩১ আগস্ট করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এদিকে বৈঠক সূত্র জানায়, সভায় মূল আলোচনা হয়েছে এরশাদের চল্লিশা পালন ও বিরোধীদলের নেতা নির্বাচন ও এরশাদের শূন্য আসনে উপ-নির্বাচন নিয়ে।

এতে প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন বলেন, জি এম কাদেরকে বিরোধীদলের নেতা বানানো উচিত। কারণ, তার সঙ্গে পার্টির তৃণমূলের সম্পর্ক রয়েছে। আর পার্টির চেয়ারম্যান বিরোধীদলের নেতা হবেন এটাই স্বাভাবিক।

পার্টির অপর প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম বলেন, পার্টির সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। পার্টির গঠনতন্ত্র বিধান মোতাবেক পার্টির চেয়ারম্যান যেকোনো বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে চেয়ারম্যান চাইলে বিরোধীদলের নেতা হতে পারেন।

সভা সূত্র আরো জানায়, জি এম কাদের তার বক্তব্যে বলেন, জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ আছে। জনগণের কল্যাণে যে ধরনের কর্মসূচি নেয়া দরকার তা এরই মধ্যে নেয়া হচ্ছে। বন্যা মোকাবিলা, ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও চামড়া ইস্যুতে আমরা রাজপথে সরব ছিলাম এবং আছি। 
 
তিনি বলেন, বিরোধীদলের নেতা কে হবেন সে বিষয়ে সবার সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্তু নেয়া হবে। যাতে করে পার্টিতে কোনো বিভেদ সৃষ্টি না হয়। রংপুরের উপনির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, উপ নির্বাচনে রংপুরের স্থানীয় নেতাদের কাছ থেকে প্রার্থী হিসেবে চারজনের নাম চাওয়া হবে। সেটার উপর ভিত্তি করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস.আর/এমআরকে