জাপানে প্রমোদতরী থেকে মুক্তি মিলল পাঁচশ যাত্রীর

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২০ ১৪২৬,   ০৯ শা'বান ১৪৪১

Akash

জাপানে প্রমোদতরী থেকে মুক্তি মিলল পাঁচশ যাত্রীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:০২ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

অবশেষে ছাড়া পাচ্ছেন জাপানের ইয়োকোহামা বন্দরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রমোদতরী প্রিন্সেস ডায়মন্ডের শত শত যাত্রী। ১৪ দিন দিনে কোয়ারেন্টাইন থাকার পর প্রমোদতরীটির মধ্যে যে সব যাত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি, তারা জাহাজ ছাড়তে শুরু করেছেন। 

সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের খবরে জানা যায়, বুধবার  প্রমোদতরীটির পরিচালনা কর্তৃপক্ষ ও জাপানি কর্মকর্তারা ‘অল ক্লিয়ার’ ছাড়পত্র পাওয়া যাত্রীদের জাহাজ ছেড়ে নেমে আসার অনুমতি দিয়েছেন। মঙ্গলবার দিনভর বিভিন্ন পরীক্ষা করা হয় ওই তরীতে থাকা ৫০০ যাত্রীকে। এরপরেই এ সিদ্ধান্তটি নেয় দেশটির সরকার। তবে তাদের আরো কিছুদিন নিজ নিজ বাড়িতেই পর্যবেক্ষণে রাখা হবে জানায় তারা। 

মঙ্গলবার ওই জাহাজে নতুন করে আরো ৮৮ জন ও বুধবার একজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে ওই জাহাজে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৪৩ জনে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে, রোববার রাতে জাহাজটি থেকে প্রায় ৩৪০ জন মার্কিন নাগরিককে দেশে ফিরিয়ে নিতে দুটি প্লেন পাঠায় যুক্তরাষ্ট্র। উড়তে শুরু করার পর সেখানে ১৪ আরোহী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। তখন তাদের অন্য আরোহীদের কাছ থেকে আলাদা করে প্লেনের ভেতরেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। প্লেন দুটির সব আরোহীকে যুক্তরাষ্ট্রের দুটি ঘাঁটিতে ১৪ দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে, জাহাজটির করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে জাপান। ডায়মন্ড প্রিন্সেসের অন্য যাত্রীরা, যারা এ ভাইরাসে আক্রান্ত নয়, তারাও জাহাজটি ছাড়তে শুরু করেছেন। তবে, নিজের অজান্তেই এসব যাত্রী ভাইরাস বহন করে ছড়িয়ে দিতে পারেন, এমন আশঙ্কা করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) এক বিবৃতিতে বলে, জাহাজটির যাত্রীদের নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার হার থেকে এটিই বোঝা যায়, যাদের মধ্যে এ ধরনের কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি, তারাও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন। মার্কিন নাগরিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায়, জাহাজ থেকে আসা সব যাত্রী ও ক্রু’র ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের আগে তাদের অন্তত ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে।

জাহাজের প্রায় ৩৭০০ যাত্রীকে দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। তাদের মধ্যে ১০ শতাংশের বেশি যাত্রীই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে জাপান ছাড়াও আরো ১১ দেশের নাগরিক রয়েছেন। জাহাজটিতে অবস্থানরত নিজেদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নেয়ার জন্য প্লেন পাঠাচ্ছে কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি ও হংকং।

উল্লেখ্য, বুধবার পর্যন্ত চীনের মূল ভূখণ্ডে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে। দুই হাজার ৪ জনে। এছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন ৭৫ হাজারেও বেশি মানুষ। এরমধ্যে এখনো পর্যবেক্ষণে রয়েছেন আরো তিন লক্ষাধিকেরও বেশি মানুষ ও প্রায় দুই হাজার স্বাস্থ্যকর্মী।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ