ঢাকা, শনিবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ১০ ১৪২৫,   ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০

জানেন কীভাবে এলো শুন‍্য?

তাইয়্যেবা ইসলাম ইমা ডেইলি-বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ১২:১০ ১১ জুলাই ২০১৮  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

শূণ্য এমন একটি সংখ্যা যা কোন সংখ্যার প্রথমে বসলে সেটি মানহীন। আবার কোন সংখ্যার পরে বসলে তা হয়ে ওঠে মূল্যবান। শূণ্য সৃষ্টি নিয়ে সকলের মনে রয়েছে নানা ভাবনা। কীভাবে এলো এই শূণ্য। তাই আজ সবার ভাবনার অবসান হবে।

গণনার নিয়ম বের করা হয়েছিল সেই প্রাচীনকালে। তবে সেটা প্রথম কে আবিষ্কার করেছিলেন তার কোনো সুস্পষ্ট প্রমাণ নেই। প্রাচীনকালে মানুষ সংখ্যার ধারণা বোঝাতে গিয়ে চিহ্ন তৈরি করেছে। আবার সংখ্যাতাত্ত্বিক হিসাব-নিকাশ সহজ করে দেয়ার জন্য আপাতদৃষ্টিতে শূণ্য মূল্যহীন মনে হলেও এর অবদান রয়েছে বেশ। তবে এই শুন্য সৃষ্টি নিয়ে রয়েছে নানা মতভেদ।

একটি দল তাদের গবেষণায় বলেছেন শূন্য সংখ্যাটির সৃষ্টি হয়েছে মেসোপটেমিয়া সভ্যতার সময়। আবার অন্য একটি দলের মতভেদ হলো আজ থেকে প্রায় সাড়ে চার হাজার বছর আগে সুমেরীয়রা প্রথম শূণ্য  ব্যবহার করত। তবে বর্তমান সময়ে শুন্য বলতে আমরা যে আকৃতির দেখি সেটি প্রথমবার ব্যবহৃত হয়েছে তৃতীয় খ্রিষ্টপূর্বাব্দে ব্যাবিলনে।

এদিকে সপ্তম শতাব্দীতে ভারতে ব্রাহ্মণ দাশগুপ্তের হাতে শূন্য তার মূলহীন  থেকে মুক্তি পেয়ে মূল্যবান হয়ে ওঠে। তিনি প্রথম শূন্যের যে মান রয়েছে তা প্রমাণ করেন। এরপর ভারত থেকে চীন এভাবে আরবের পৌঁছে যায় এ শূন্য। ইউরোপ ও এশিয়ায়  শূণ্য পৌঁছে গেছেস আরো কয়েক শতাব্দী পর। প্রায় একাদশ শতাব্দীর পর ইউরোপের শূন্যের ব্যবহার শুরু হয়। শূণ্যকে জনপ্রিয় করার পেছনে প্রধান অবদান রাখেন ফিবোনিচ্চি সিরিজ এর উদ্ভাবক ইতালির গণিতজ্ঞ ফিবোনিচ্চি।  

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ