জাকাত না দেয়ার পরিণাম

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৬,   ১৭ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

জাকাত (পর্ব-২)

জাকাত না দেয়ার পরিণাম

প্রিয়ম হাসান ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:১১ ১৬ মে ২০১৯   আপডেট: ১১:২৯ ১৮ মে ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

প্রত্যেক মুসলমানকে যেমন জাকাত ফরজ হওয়ার বিষয় সম্পর্কে বিশ্বাস করতে হবে, ঠিক তেমনিভাবে যার ওপর জাকাত ফরজ তাকে তা নিয়মিত পরিশোধও করতে হবে।

পর্ব-১ এর পর থেকে...

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُواْ إِنَّ كَثِيرًا مِّنَ الأَحْبَارِ وَالرُّهْبَانِ لَيَأْكُلُونَ أَمْوَالَ النَّاسِ بِالْبَاطِلِ وَيَصُدُّونَ عَن سَبِيلِ اللّهِ وَالَّذِينَ يَكْنِزُونَ الذَّهَبَ وَالْفِضَّةَ وَلاَ يُنفِقُونَهَا فِي سَبِيلِ اللّهِ فَبَشِّرْهُم بِعَذَابٍ أَلِيمٍ

‘হে ঈমানদারগণ! পন্ডিত ও সংসারবিরাগীদের অনেকে লোকদের মালামাল অন্যায়ভাবে ভোগ করে চলছে এবং আল্লাহর পথ থেকে লোকদের নিবৃত রাখছে। আর যারা স্বর্ণ ও রুপা জমা করে রাখে এবং তা ব্যয় করে না আল্লাহর পথে, তাদের কঠোর আযাবের সুসংবাদ শুনিয়ে দিন।’ (সূরা: তওবা, আয়াত: ৩৪)

يَوْمَ يُحْمَى عَلَيْهَا فِي نَارِ جَهَنَّمَ فَتُكْوَى بِهَا جِبَاهُهُمْ وَجُنوبُهُمْ وَظُهُورُهُمْ هَـذَا مَا كَنَزْتُمْ لأَنفُسِكُمْ فَذُوقُواْ مَا كُنتُمْ تَكْنِزُونَ

আল্লাহ তায়ালা আরো বলেন,

‘সে দিন জাহান্নামের আগুনে তা উত্তপ্ত করা হবে এবং তার দ্বারা তাদের ললাট, পার্শ্ব ও পৃষ্ঠদেশকে দগ্ধ করা হবে (সেদিন বলা হবে), এগুলো যা তোমরা নিজেদের জন্যে জমা রেখেছিলে, সুতরাং এক্ষণে আস্বাদ গ্রহণ কর জমা করে রাখার।’(সূরা: তওবা, আয়াত: ৩৫)

আরো পড়ুন>>> জাকাত কী? (পর্ব-১)

আবদুল্লাহ বিন মাসউদ (রা:) থেকে বর্ণিত হয়েছে যে, আল্লাহর রাসূল (সা.) বলেন, ‘কোনো ব্যক্তি যদি তার ধনসম্পদের জাকাত না দেয় তবে ওই সম্পদ কিয়ামতের দিন অজগর সাপের আকার ধারণ করে তার গলদেশ বেষ্টন করবে।’

রাসূল (সা.) তারপর তেলাওয়াত করলেন,

وَلاَ يَحْسَبَنَّ الَّذِينَ يَبْخَلُونَ بِمَا آتَاهُمُ اللّهُ مِن فَضْلِهِ هُوَ خَيْرًا لَّهُمْ بَلْ هُوَ شَرٌّ لَّهُمْ سَيُطَوَّقُونَ مَا بَخِلُواْ بِهِ يَوْمَ الْقِيَامَةِ وَلِلّهِ مِيرَاثُ السَّمَاوَاتِ وَالأَرْضِ وَاللّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ خَبِيرٌ

‘আল্লাহ তাদেরকে নিজের অনুগ্রহে যা দান করেছেন তাতে যারা কৃপণতা করে এই কার্পন্য তাদের জন্য মঙ্গলকর হবে বলে তারা যেন ধারণা না করে। বরং এটা তাদের পক্ষে একান্তই ক্ষতিকর প্রতিপন্ন হবে। যাতে তারা কার্পন্য করে সে সমস্ত ধন-সম্পদকে কিয়ামতের দিন তাদের গলায় বেড়ী বানিয়ে পরানো হবে। আর আল্লাহ হচ্ছেন আসমান ও যমীনের পরম সত্ত্বাধিকারী। আর যা কিছু তোমরা কর; আল্লাহ সে সম্পর্কে জানেন। (সূরা: আলে ইমরান, আয়াত: ১৮০) 

নাসায়ী ও ইবনে মাজাহ। হজরত আলী (রা:) থেকে বর্ণিত হয়েছে যে, আল্লাহ রাসূল (সা.) বলেন, ‘সুদখোর, সুদদাতা, উহার সাক্ষী ও লেখক, উল্কি অংকনকারিণী এবং যে নারী উল্কি অংকন করায়, অভিশপ্ত ওই ব্যক্তি যে জাকাত দিতে অস্বীকার করে, হিল্লাকারী ও যার জন্য হিল্লা করানো হয়, এদের সকলের ওপর আল্লাহর অভিশাপ বা লা’নত।’ (আহমাদ ও নাসায়ী)

হাদীসে বর্ণিত আছে , একদা দু’জন মহিলা রাসূলুল্লাহ (সা.) এর নিকট আসল। তাদের দু’জনের হাতে স্বর্ণের কংকণ ছিল। তখন নবী করীম (সা.) তাদেরকে জিজ্ঞেস করলেন,  ‘তোমরা তোমাদের অলংকারের জাকাত দাও কী?’ তারা বললো, ‘না।’ তখন নবী (সা.) বললেন, ‘তোমরা কী পছন্দ করবে যে, আল্লাহ তায়ালা তোমাদেরকে আগুনের দু’টি বালা পরিয়ে দেবেন?’ তারা দু’জন বলল, ‘না।’ তখন নবী (সা.) বললেন, ‘তাহলে তোমরা এ স্বর্ণের জাকাত প্রদান কর।’ (তিরমিযি)

চলবে...

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে

Best Electronics