Exim Bank
ঢাকা, মঙ্গলবার ১৯ জুন, ২০১৮
Advertisement

জলাবদ্ধতাকেই দুষলেন হাসান-জাহাঙ্গীর

 গাজীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৫৬, ১৩ জুন ২০১৮

আপডেট: ১০:০৩, ১৪ জুন ২০১৮

৭২ বার পঠিত

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

দ্বিতীয় দফায় তারিখ নির্ধারণের পর গাজীপুর সিটি করপোরেশন ১৮ জুন প্রচারণা শুরু হবে।  কিন্তু মেয়র প্রার্থীসহ কাউন্সিল প্রার্থীরাও নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা উপেক্ষা করে প্রচারণায় নেমে পড়েছেন।

পুরো রমজান জুড়েই প্রচারণায় নেমে পড়েছেন তারা।  বিশেষ করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম ও বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার প্রচারণায় চলছে যেন হাড্ডাহাড্ডি লড়াই।

সরেজমিনে দেখা যায়- গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে নগরীর সড়ক মহাসড়ক ও নিম্মাঞ্চল তলিয়ে গেছে। উভয় দলের প্রার্থীই নগরীর জলাবদ্ধতাকে প্রচারণার ইস্যু হিসেবে দাঁড় করিয়েছেন।  কারণ গাজীপুর সিটি করপোরেশন গঠনের পাঁচ বছর পার হলেও নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও পানি নিষ্কাশনের তেমন উন্নতি হয়নি।  ফলে সামান্য বৃষ্টিতেই নগরীর বিভিন্ন এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়, সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা।  আর এতে  দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন সাধারণ নাগরিকরা।

আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম মহানগরের ছয়দানায় নিজ বাসায় ভোটারদের  দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন। এর আগে সকাল  থেকে মহানগরীর ৪২৫টি  কেন্দ্র কমিটির নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। তিনি বলেন, ঈদের ঠিক পূর্ব মুহূর্তে বৃষ্টির কারণে জলাবদ্ধতায় চরম জনভোগান্তিতে পড়েছে নগরবাসী।  সামান্য বৃষ্টি হলেই টঙ্গী, গাছা, বোর্ডবাজার, চান্দনা চৌরাস্তা, জয়দেবপুর,  কোনাবাড়িসহ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ব্যাপক জলাবদ্ধতা হচ্ছে। অতীতের অপরিকল্পিত  ড্রেনেজ ব্যবস্থা এবং জলাধার সংরক্ষণে ব্যর্থতা এর জন্য দায়ী।  

তিনি নির্বাচিত হলে পরিকল্পিত  ড্রেনেজ ব্যবস্থা  তৈরির পাশাপাশি জলাধার সংরক্ষণে উদ্যোগী হবেন।  তিনি সবাইকে আগামী ২৬ জুন নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে তাকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান।  

জাহাঙ্গীর আরও বলেন, তিনি কর্মে বিশ্বাস করেন।  ছাত্রজীবন থেকেই কর্ম করে জীবিকা নির্বাহ করেন।  সিটি করপোরেশনকে একটি জনবান্ধব এবং  সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে  তোলাই তার লক্ষ্য।  

জাহাঙ্গীর বুধবার মহনগরের টঙ্গী বাজার ও গাজীপুরা এলাকায় পৃথক দুটি ইফতার ও দোয়ার অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

অপরদিকে বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার টঙ্গীর নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, গাজীপুর নগরবাসীর প্রতিটি দুর্ভোগই মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নানের নির্যাতনের কথা স্মরণ করিয়ে  দেয়।  আওয়ামী লীগ শুধু  মেয়র মান্নানকেই নির্যাতন করেনি বরং প্রকারান্তরে  গোটা নগরবাসীকে নির্যাতন করেছে।  আজকে সামান্য বৃষ্টি এলেই এই নগর তলিয়ে যায়। 

তিনি বলেন- মেয়র মান্নান নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সর্বপ্রথম জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন।  তাকে  সেই উদ্যোগ বাস্তবায়নের সুযোগ দিলে আজকে জলাবদ্ধতায় নগরবাসীর এই দুর্ভোগ থাকতো না।  মেয়র মান্নানকে বরখাস্ত করে আওয়ামী লীগ নিজেদের  লোক দিয়ে উন্নয়নের নামে লুটপাট করেছে।  তা না হলে নগরীর চিত্র আজ এমন হতো না। 

হাসান সরকার বুধবার টঙ্গীর মিল গেট এলাকায় এক ইফতার মাহফিলে যোগদান করেন। এর আগে তিনি নিজ বাসভবনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

সর্বাধিক পঠিত