Alexa জন্মদিনে বন্যার ‘তুমি মোর পাও নাই পরিচয়’

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৮ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

জন্মদিনে বন্যার ‘তুমি মোর পাও নাই পরিচয়’

বিনোদন প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৫:৫৯ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৫:৫৯ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

আজ বিশিষ্ট বরীন্দ্র সংগীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার জন্মদিন। এ উপলক্ষে প্রকাশ করা হয়েছে তার একক রবীন্দ্র সংগীতের অ্যালবাম ‘তুমি মোর পাও নাই পরিচয়।’ প্রকাশ করেছে ইমপ্রেস অডিও ভিশন। মোড়ক উন্মোচন পর্বে অংশ নেন- অধ্যাপক আনিসুল হক, আলী ইমাম, ফহাদুর রেজা প্রবাল প্রমুখ। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা।

জন্মদিন উপলক্ষে চ্যানেল আই এর নিয়মিত গানের অনুষ্ঠান ‘গানে গানে সকাল শুরু’ প্রচার করেছে বিশেষ পর্ব। এ অনুষ্ঠানে রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা সুরের ধারার শিল্পীদের নিয়ে গান আর আড্ডায় মেতেছেন সকাল ৭.৩০ মিনিট থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত। শুরুতে সহশিল্পীদের সমবেত কণ্ঠে পরিবেশিত হয় ‘তোমার সুরের ধারা’ গানটি। এক পর্যায়ে মঞ্চে আসেন সাদী মোহাম্মদ। বিশিষ্টজনদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠানস্থল মুখোরিত হয়েছিল।

গান ও মোড়ক উন্মোচন পর্ব শেষ চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর উত্তরীয় পরিয়ে দেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে। এরপর তিনি গানের রাজার শিল্পীদের মঞ্চে আমন্ত্রণ জানান। গানের রাজার শিল্পীরা সুরের ধারার শিল্পীদের সঙ্গে ‘আলো আমার আলো ওগো আলোয় ভুবন ভরা’ গানটি পরিবেশন করে। এরপর কেক কাটার মধ্যদিয়ে শেষ হয় বন্যার জন্মদিন উপলক্ষে চ্যানেল আই এর ছাতিম তলায় আয়োজিত ‘গানে গানে সকাল শুরু’র এই বিশেষ পর্ব। অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে চ্যানেল আই।

‘তুমি মোর পাও নাই পরিচয়’ অ্যালবামে গানগুলোর মধ্যে রয়েছে- আগুনে হল আগুনময়, বাহিরে ভুল হানবে যখন, খোলো খোলো দ্বার, বাঁধন ছেঁড়ার সাধন হবে, মনে যে আশা লয়ে এসেছি, তোমা কথা হেথা কেহ তো বলে না, আমার সকল কাঁটা ধণ্য হবে, দূর দেশি সেই রাখাল ছেলে, তুমি মোর পাও নাই পরিচয় এবং এ পথে আমি-যে গেছি বার বার।

প্রখ্যাত রবীন্দ্র সঙ্গীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ব্যাপক জনপ্রিয়। রংপুরের মেয়ে বন্যা মা-বাবার উৎসাহে চাচা আবদুল আলীর কাছে গান শেখা শুরু করেন। পরে গান শেখেন ছায়ানটের ড. সানজীদা খাতুন ও আতিকুল ইসলামের কাছে। বুলবুল একাডেমিতেও গান শিখেছেন। ভারত সরকারের কাছ থেকে শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে তিনি চলে যান রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত শান্তি নিকেতনে। সেখানে কণিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, নীলিমা সেন, শান্তিদেব ঘোষসহ প্রমুখ বিশিষ্টজনের তত্ত্বাধায়নে রবীন্দ্রসঙ্গীত শেখেন। বর্তমানে তিনি নিজেকে গানের মধ্যেই নিয়োজিত রেখেছেন এবং ‘সুরের ধারা’ নামক গানের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করে সেখানে রবীন্দ্র সঙ্গীত চর্চা ও গবেষণার কাজ করছেন। তিনি দেশ বিদেশে অসংখ্যবার সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএস/এসআই