জঙ্গি আস্তানায় ফ্রিজের ভেতরেও বোমার সরঞ্জাম

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৬,   ১৮ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

জঙ্গি আস্তানায় ফ্রিজের ভেতরেও বোমার সরঞ্জাম

 প্রকাশিত: ১৪:৩৬ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

মিরপুরের মাজার রোডের জঙ্গি আস্তানায় ফের তল্লাশি শুরু করেছে র‌্যাব; ওই বাড়িতে থাকা বিপুল সংখ্যক ফ্রিজের ভেতরেও মিলছে বোমা তৈরির সরঞ্জাম। মাজার রোডের পাশে বর্ধনবাড়ি এলাকায় ছয় তলা ওই বাড়িতে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে পঞ্চম দিনের অভিযান শুরু করেন র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান দুপুরের আগে বাইরে এসে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ষষ্ঠ তলার একটি অংশে তল্লাশি সম্পন্ন করেছিলাম। আজ সেখানে আরেকটি অংশে, যেখানে ফ্রিজ রয়েছে সেগুলো আমরা সাবধানতার সঙ্গে খুলছি। ওখান থেকে আরও কিছু বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

ছয়তলা ওই ভবনের প্রতিটি তলায় চারটি করে ইউনিট। তার মধ্যে পঞ্চম তলার দুটি ইউনিটে সন্দেহভাজন জঙ্গি আবদুল্লাহ পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন। ষষ্ঠ তলার অর্ধেক অংশে তিনি কবুতর পুষতেন। বাকি খোলা জায়গাও কবুতর রাখতে ব্যবহার করা হত। বৃহস্পতিবার ষষ্ঠ তলার একটি অংশে তল্লাশি চালিয়ে ২৩টি ফ্রিজ পাওয়ার কথা জানিয়েছিল র‌্যাব কর্মকর্তা মুফতি মাহমুদ।

টাঙ্গাইলের এলেঙ্গায় সোমবার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে জেএমবির জঙ্গি দুই ভাইকে ড্রোন ও দেশীয় অস্ত্রসহ আটকের পর তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সেদিন মধ্যরাতে মিরপুরের ওই বাড়িতে অভিযান শুরু করে র‌্যাব।
র‌্যাবের পক্ষ থেকে বলা হয়, ওই বাড়ির পঞ্চম তলায় দুর্ধর্ষ জঙ্গি আবদুল্লাহ, তার দুই স্ত্রী, দুই সন্তান ও দুই কর্মচারী আছেন। মঙ্গলবার সারাদিন র‌্যাবের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করে আবদুল্লাহকে আত্মসমর্পণে রাজি করানোর চেষ্টা চলে।

সন্ধ্যায় জানানো হয়, আবদুল্লাহ আত্মসমর্পণ করতে রাজি হয়েছেন। কিন্তু রাত পৌনে ১০টার দিকে ওই ভবনে বিকট শব্দে তিনটি বিস্ফোরণ ঘটে। বুধবার সকাল থেকে সারা দিন তল্লাশি চালিয়ে বিকালে পঞ্চম তলার ওই বাসা থেকে সাতজনের খুলি ও পোড়া অঙ্গপ্রত্যঙ্গ পাওয়ার কথা জানায় র‌্যাব।

পরদিন ষষ্ঠ তলার একটি অংশে পাওয়া যায় ১০টি উচ্চ ক্ষমতার বোমা, বিভিন্ন রাসায়নিক দিয়ে তৈরি বিস্ফোরক, ৩০টি বোতল বোমা, ৫০টি দেশীয় অস্ত্র এবং সালফার, ১০ কেজি গান পাউডারসহ বিভিন্ন বোমা তৈরির সরঞ্জাম। বুধবার বিকালে সাতজনের দেহাবশেষ পাওয়ার পর র‌্যাব মহাপরিচলক বেনজীর আহমেদ জানিয়েছিলেন, বিস্ফোরণে পঞ্চম তলার মেঝেতে দুই ফুট বাই দুই ফুট আকারের গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। ওই গর্ত দিয়ে আগুন ছড়িয়ে চতুর্থ তলার ফ্ল্যাটেও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। র‌্যাব অভিযান শুরুর পর ভবনের অন্য ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা তালা মেরে চলে গিয়েছেন। নিরাপত্তার স্বার্থে পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলার তল্লাশি শেষে ওই ফ্ল্যাটগুলোতেও তল্লাশি করা হবে বলে মুফতি মাহমুদ জানান।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

Best Electronics