Alexa জঙ্গল নয়, লোকালয়ের যে গ্রামে কেউ কাপড় পরে না!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৮ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৩ ১৪২৬,   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪০

জঙ্গল নয়, লোকালয়ের যে গ্রামে কেউ কাপড় পরে না!

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১১ ৪ জুলাই ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঘনজঙ্গলে কিছু আদিবাসী আছে যারা এখনও সভ্যতার ছোঁয়া পায়নি। যার কারণে তারা কাপড় পরিধান করেন না। কিন্তু এই সভ্য জগতেও এমন একটি গ্রাম আছে যেখানে কেউ কাপড় পরেন না। অবাক হচ্ছেন? যুক্তরাজ্যের হার্টফোর্ডশায়ারে অবস্থিত স্পিলপ্লাজ নামক গ্রামে এমনই রীতি! সভ্যতার পথপ্রদশক বলে যারা নিজেদের দাবি করে সেই যুক্তরাজ্যে এমন গ্রামটি অবস্থিত।

মজার ব্যাপার হচ্ছে- ওই গ্রামের মানুষ বেশ সচেতন ও সৌখিন। তারা গায়ে কাপড়ের কোন পোশাক না পরলেও রোদ থেকে চোখ বাঁচাতে সানগ্লাস ঠিকই ব্যবহার করেন। গলায় স্বর্নের চেইন এমনকি আঙ্গুলে আংটিও পরেন শখ করে। গ্রামের ভেতর বেশ সমৃদ্ধ বারও আছে। শুধু পোশাকই নেই গায়ে। আর একমাত্র নগ্ন হতে রাজি হলেই ঐ গ্রামে জমি কিনতে পারবেন। অন্যথায় জমিও মিলবে না, মিলবে না বাড়ি-ঘর বা বসবাসের সুযোগ। তাই সেখানে থাকতে চাইলে তাদের মতো করেই থাকতে হবে।  

জানা যায়, ওই গ্রামের সবাই বস্ত্রহীন। প্রথম দর্শনে একে আর দশটি গ্রামের মতোই মনে হবে। ছবির মতো সুন্দর, বেশ পরিপাটি। কিন্তু এই ধারণা পাল্টাতে শুরু করবে যখন ঐ গ্রামের কোনো বাসিন্দার দেখা পেয়ে যান। এই গ্রামের বাসিন্দারা গ্রামটিকে যুক্তরাজ্যের সবচেয়ে পুরনো নগ্নতাবাদী অঞ্চল বলে দাবি করেন। তারা এতটাই নগ্নতাবাদী যে আপনি যদি তাদের মতের সঙ্গে একমত না হন তাহলে সেই গ্রামের কেউ আপনার কাছে জায়গা-জমি, বাড়ি-ঘর কিছুই বিক্রি করবে না।

ঐ গ্রামের বাসিন্দাদের মতে, অন্য গ্রামের সঙ্গে এই গ্রামের কোনো পার্থক্য নেই। বাকিরা যেভাবে জীবন ধারণ করে তারাও সেইভাবে করেন। সকালে ঘুম থেকে ওঠা, দিনের কাজ শুরু করা, বাজারে যাওয়া, পাঠশালায় যাওয়া, দুধওয়ালা, পোষ্টম্যান সবই এক। সবকিছুই স্বাভাবিক, অস্বাভাবিক কিছুই তারা দেখেন না। শুধুমাত্র বস্ত্রহীন থাকা ছাড়া।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ