Alexa ছোটদের মেলা বড়দের দখলে

ঢাকা, সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ১ ১৪২৬,   ১৬ মুহররম ১৪৪১

Akash

ছোটদের মেলা বড়দের দখলে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:০০ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

একুশে বইমেলার উঠোন বড়দের পদচারণায় মুখর থাকলেও শুক্রবার সকালটা শুরু হয় শিশুদের হাসির উচ্ছ্বাসে। ‘শিশু প্রহর’ নামে বাংলা একাডেমির এই আয়োজন এরই মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। সারা শহর থেকেই শিশুরা এসে ভিড় করছে এই বইয়ের বাগানে। 

তবে এই সপ্তাহে শিশু প্রহরের চিরায়ত চিত্র কিছুটা পাল্টে গেছে। কারণ শুক্রবার সকালে মেলার দ্বার উন্মোচনের পর শিশুদের পিছু পিছু বড়রাও এসে ভিড় করেছে মেলায়। ফলে শিশুদের মেলা চলে গেছে বড়দের দখলে। আর শিশুদের আনন্দ করার ছোট্ট জায়গাটি হয়ে পড়েছে জনাকীর্ণ। 

বাসাবো থেকে আসা নাজিয়া জামান বলেন, আমরা শুনেছি শুক্রবার সকালেই মেলা শুরু হয়। তাই এসেছি। পরে নিজেই বুঝতে পেরেছি যে, এটা ভুল হয়েছে। এখন কি করবো! শিশুদের মেলায় এসে ভালোও লাগছে, আবার খারাপও লাগছে। কারণ আমাদের কারণে শিশুরা ঠিকমতো আনন্দ করতে পারছে না।

দ্বীপান্বিতা কর্মকার বলেন, আমরা আসলে জানতাম না যে শুক্রবার সকালের মেলাটা শিশুদের জন্য আয়োজন করা হয়। তাহলে অবশ্যই বিকেলে আসতাম। তবে এখানে এসে মন ভালো হয়ে গেছে। শিশুরা এতো সুন্দর করে আনন্দ করছে, খেলছে, হাসছে, গাইছে, আমি সত্যিই অভিভূত। মনে হচ্ছে যেন শৈশবে ফিরে গেছি।  

শিশুরা অবশ্য বড়দের ভিড় নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নয়। তবে ফাগুনের আগুন গরমে তারা নাকাল হয়ে পড়েছে। মেলায় দুয়েকটা পানির বুথ থাকলেও সেটা আগত শিশুদের সংখ্যার তুলনায় অপ্রতুল। তাই সিসিমপুরের গাছতলার অদূরেই ‘গরম লাগছে’ বলে বেশ কয়েকজন শিশুকে হাঁসফাঁস করতেও দেখা গেছে। 

এদিকে শিশু কর্নারের প্রকাশনা স্টলগুলোর সামনে আজ ছিল উপচে পড়া ভিড়। প্রতিটি প্রকাশনীতেই শুক্রবার বই বিক্রি হয়েছে আশাতীত। শিলা প্রকাশনীর এক কর্মকর্তা জানান, মেলা যতই শেষ হয়ে আসছে বইয়ের বিক্রিও ততো বাড়ছে। অন্যান্য বারের চেয়েও অনেক বেশি বই বিক্রি হয়েছে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলার সদস্যসচিব জালাল আহামেদ বলেন, শিশুদের মেলায় বড়রা আসবে কেন! এটা তো অশোভন! কিন্তু আমরা কি করবো বলুন? এটা তো দর্শনার্থীদের বুঝতে হবে। আমি আশা করবো, শনিবার এই ভিড় হবে না। শিশুদের জয়গায় ওরা নিজেদের মতো করেই খেলতে পারবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএস/আরএইচ/জেডআর