Alexa ছাত্রীকে যৌন হয়রানির সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৫ ১৪২৬,   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:১৬ ২১ জুলাই ২০১৯  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক বিষ্ণুকুমার অধিকারীর বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর করা যৌন হয়রানির অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি।

রোববার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ও ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক আবুল হাসান চৌধুরী।

অধ্যাপক আবুল হাসান চৌধুরী বলেন, দুই শিক্ষার্থীর অভিযোগের সত্যতার আলামত মিলেছে। হাইকোর্ট যৌন হয়রানির বিষয়ে যে ধরনের ব্যাখ্যা দিয়েছে তার সঙ্গে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ মিলে গেছে এবং আমরা তার প্রমাণ পেয়েছি। ওই দুই শিক্ষার্থীর সঙ্গে তার (শিক্ষকের) কথা-বার্তা, অঙ্গভঙ্গি এবং আচরণ যৌন হয়রানির মতোই ছিল বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি।

যৌন হয়রানির শিকার শিক্ষার্থীদেরকে শিক্ষক বিষ্ণুকুমার হুমকি দিচ্ছেন এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কমিটির আহ্বায়ক বলেন, তারা বলেছিল শিক্ষক অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দিচ্ছে। আমরা তদন্তে পেয়েছি শিক্ষকের অনুসারী কিছু শিক্ষার্থীকে দিয়ে অভিযোগ তুলে নিতে ভুক্তভোগীদের বলা হয়েছে। শিক্ষক বড় হুমকি হতে পারত তাদের একাডেমিক ফলে সেজন্য তাকে আমরা ক্লাস-পরীক্ষা থেকে অব্যাহতি দিয়েছি।

আগামীকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের কাছে কমিটি তাদের চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেবে বলে জানান কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক আবুল হাসান চৌধুরী।

গত ২৫ জুন ইনস্টিটিউটের চতুর্থ বর্ষের এক ছাত্রী এবং ২৭ জুন দ্বিতীয় বর্ষের আরেক ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনসহ ইনস্টিটিউটে বিষ্ণুকুমার অধিকারীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এরপর ইনস্টিটিউটের পরিচালক আবুল হাসানকে আহ্বায়ক করে এবং ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক আকতার বানু ও অধ্যাপক রুবাইয়াত জাহানকে সদস্য করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

অভিযোগকারী দুই শিক্ষার্থীকে অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য শিক্ষক চাপ দিচ্ছেন উল্লেখ করে ২৮ জুন নগরীর মতিহার থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা। এরপর ৩ জুলাই ইনস্টিটিউটের  স্নাতক  পর্যায়ের চারটি বর্ষের একাডেমিক কার্যক্রম থেকে তাকে অব্যাহতি দেয় একাডেমিক কাউন্সিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ

Best Electronics
Best Electronics