.ঢাকা, শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৫ ১৪২৬,   ১৩ শা'বান ১৪৪০

চ্যানেল আইতে ‘আমাদের সন্তানেরা’

বিনোদন প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১০:৫৩ ৯ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১১:২৮ ৯ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বেসরকারি টেলিভিশন স্টেশন ‘চ্যানেল আই’ এবার নিয়ে আসছে বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা, সংগঠক, নাট্য ও চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ এর পরিকল্পনা ও সঞ্চালনায় ‘আমাদের সন্তানেরা’ নামের অনুষ্ঠান। এ অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব প্রচার হবে ১০ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার রাত ৮:৩০ মিনিটে। 

প্রথম পর্বের অতিথি হিসেবে থাকছেন গনিত অলিম্পিয়াডে প্রথম বাংলাদেশী স্বর্ন পদক বিজয়ী আহমেদ জাওয়াদ চৌধুরী। এরপর থেকে প্রতি মাসের ২য় ও ৪র্থ বৃহস্পতিবার মাসে দু’টি করে পর্ব প্রচাররিত হবে। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করছেন রেহানা সামদানী। অনুষ্ঠানটি নিবেদন করেছে ইউসিবি।

অনুষ্ঠানের বিস্তারিত জানাতে  ৮ জানুয়ারি দুপুরে চ্যানেল আই ভবনে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল আই এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, নাসিরউদ্দিন ইউসুফ এবং আনিসুল হক। 

ফরিদুর রেজা সাগর শুভেচ্ছা বক্তব্যে অনুষ্ঠান সম্পর্কে বলেন, চ্যানেল আই-এর বয়স ২০ বছর চলছে। আমি সব সময়েই বলে আসছি আমাদের এমন কিছু করে যাওয়া উচিত আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তৈরীতে সহায়ক হবে। আমি মনে করি এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমরা সেই কাজটি করতে যাচ্ছি। নাসির উদ্দিন ইউসুফ অনুষ্ঠানটির বিস্তারিত ব্যাখ্যা করেন। অনুষ্ঠান সম্পর্কে আলোচনা করেন আনিসুল হক। চ্যানেল আই সংবাদ সম্মেলনটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে।

অনুষ্ঠানের বিষয়বস্তু সম্পর্কে আয়োজকেরা জানা, মানুষ কখনো কখনো তার স্বপ্নের চেয়ে বড় হয়, আবার কখনো স্বপ্ন মানুষকে তার সময়ের সীমা ছাড়িয়ে নিয়ে যায় দুর ভবিষ্যতের পথে। বিজ্ঞান, সাহিত্য, শিল্প, বিপ্লব, ক্রীড়া অর্থাৎ মানুষের সৃষ্ট সকল বিদ্যায় কি মানবিকতায় নতুন শতকে নতুন দিনের মানুষেরা যেন শতসহস্র্র প্রতিভায় দীপ্ত হয়ে মানব সমাজ, সভ্যতাকে নিয়ে যাচ্ছে এক অনুকরনীয় উচ্চতায়। 

প্রতিদিনের দেখা মানুষটাই হঠাৎ যেন বিশাল এক মানুষ হয়ে এসে দাড়ায় আমাদের সামনে, আমরা বিস্মিত হই, চমকে উঠি, ভাবি- এই মানুষ কোথায় ছিলেন, কোথা থেকে এলেন। ‘আমাদের সন্তানেরা’ অনুষ্ঠানে নাসির উদ্দিন ইউসুফ এই চমক লাগা- ঘোর লাগা মানুষগুলোকেই তাদের ভিতর, বাইরে, অন্তঃ-বহিঃ বৃত্তে জানতে চেয়েছেন, জানাতে চেয়েছেন সবাইকে। 

দেশের এই সব কৃতি সন্তানদের উজ্জল আলোর প্রভায় আগামী দিনের তরুণ-তরুণী, দেশের মানুষ স্বপ্ন ও শক্তি এবং ঋদ্ধ হবেন, এই আশাবাদ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএস/টিএএস