Alexa চেয়ারম্যানের হুকুমে নারী ইউপি সদস্যকে মারধর!

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৫ ১৪২৬,   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

চেয়ারম্যানের হুকুমে নারী ইউপি সদস্যকে মারধর!

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২৮ ৩১ জুলাই ২০১৯  

অভিযোগকারী মুর্শেদা বেগম

অভিযোগকারী মুর্শেদা বেগম

ময়মনসিংহের মইলাকান্দা ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের বিরুদ্ধে এক নারী ইউপি সদস্যকে মারধরের হুকুমের অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার সকালে ওই ইউপির চেয়ারম্যানের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী মুর্শিদা বেগম বড়কালিহর গ্রামের আব্দুল হাইয়ের মেয়ে। তিনি মইলাকান্দা ইউপির ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী আসনের ইউপি সদস্য।

মুর্শিদা বেগম জানান, বিভিন্ন দুর্নীতির বিষয়ে প্রতিবাদ ও অভিযোগ করায় চেয়ারম্যান তার ওপর ক্ষুদ্ধ ছিলেন। ঘটনার দিন সকালে এলাকার স্যানিটেশন নিয়ে কথা বলতে চেয়ারম্যানের বাড়িতে যান। এ সময় কথাবার্তার একপর্যায়ে চেয়ারম্যান তার প্রতি ক্ষুব্দ হন এবং তাকে ঘর থেকে বের করে দেন। মুর্শিদা চেয়ারম্যানের এমন অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যান তার চাচা লিয়াকত আলীকে মারধরের হুকুম দেন। চেয়ারম্যানের হুকুমে লিয়াকত আলী বাড়ির সামনে প্রকাশ্যে মুর্শিদাকে কিল ঘুষি মারেন। এতে তিনি আহত হন।

তিনি আরো জানান, মারধরের পর মুর্শিদাকে চেয়ারম্যানের বাড়িতে প্রায় এক ঘন্টা আটকে রাখা হয়। পরে খবর পেয়ে পরিবারের লোক চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করে। পরে চিকিৎসার জন্য গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন স্বজনরা।

এ বিষয়ে মইলাকান্দা ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ জানান, সকালে ওই নারী ইউপি সদস্য বাড়ির সামনে এসে গালমন্দ করছিলেন। এ নিয়ে চাচার সঙ্গে নারী ইউপি সদস্যের বাকবিতণ্ডা হয়েছে। এখানে মারধরের ঘটনা ঘটেনি।

তিনি আরো বলেন, ইউপি সদস্য মুর্শিদাকে বাড়িতে বসিয়ে ঘটনাটি মীমাংসার চেষ্টা করি। এক্ষেত্রে তাকে বাড়িতে আটক রাখার অভিযোগটি মিথ্যা।

গৌরীপুর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিয়া বলেন, ভুক্তভোগী নারী থানায় এসেছিলেন। তাকে দায়িত্বরত কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ

Best Electronics
Best Electronics