.ঢাকা, সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ৮ ১৪২৬,   ১৬ শা'বান ১৪৪০

চুল রঙীন হোক প্রাকৃতিকভাবে

 প্রকাশিত: ১৯:৫৭ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৯:৫৭ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

অনেকে সাদা চুল কালো করার জন্য বা চুলে বিভিন্ন কালার করতে কেমিকেলযুক্ত রঙ বা কলপ ব্যবহার করেন। যা চুলের জন্য বেশ ক্ষতিকর। কেমিকেলযুক্ত রঙ ব্যবহার না করেও প্রকৃতিক উপায়ে চুলে কালার করা যায়। জেনে নিন প্রাকৃতিকভাবে চুলে দীর্ঘস্থায়ী কালার পেতে যা করবেন-

হেয়ার প্যাক ১: প্রথমে গরম পানিতে একটি মিনিপ্যাক কফি পাউডার মিক্স করে নিতে হবে। চুলের রঙ ব্রাউন করতে কফি অনেক ভালো কাজ করে। এবার একটি কাচের বাটিতে চার টেবিল চামচ মেহেদি পাউডার নিন। এই পাউডার চুলের লম্বা ও ঘণত্ব অনুযায়ী নিতে হবে। তবে এই প্যাকটি অবশ্যই কাচের বাটিতে তৈরি করতে হবে। লোহার বাটিতে এই প্যাকটি তৈরি করলে আরও ভালো ফল পাওয়া যাবে। এবার এতে দিতে হবে দুই চামচ খর। এটা যেকোন পানের দোকানে খুব সহজে পেয়ে যাবেন। তবে খর পেতে সমস্যা হলে এক চামচ দারুচিনি গুঁড়ো দিয়ে দিতে পারেন। আগে থেকে তৈরি করে রাখা কফির পানি দিয়ে এটি মিক্স করতে হবে। একসঙ্গে সব কফির পানি দেয়া যাবে না। তবে মেহেদি পাউডার দানা দানা থেকে যাবে। এবার এর মধ্যে সামান্য পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। বেশি পানি দেয়া যাবে না তবে পাতলা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবণা থাকবে। এটা ভালো করে মিক্স করতে হবে যেন দানা ভাব না থাকে। শুধু চুল লাল রাঙাতে নয়, চুলের স্বাস্থ্যের জন্যও মেহেদি অনেক ভালো কাজ করে।

মেহেদি চুল রঙ করার পাশাপাশি চুলের গোড়া শক্ত করে আর চুলকে রাখে কোমল। তাছাড়া মেহেদি চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। আর এ মেহেদির রঙও থাকে অনেক দিন। এটি চুলে গাড়ো ব্রাউন কালার পেতে সাহায্য করে থাকে। এবার তৈরি করা পেস্টটি সারারাত ঢেকে রেখে দিতে হবে। পরদিন সকালে দেখতে পাবেন, মেহেদির কালার আরো গাঢ় হয়ে সুন্দর ক্রিমের মতো হয়ে গেছে। এর মধ্যে এক চা চামচ সরিষার তেল দিয়ে ভালো করে মিক্স করে নিতে হবে। সরিষার তেল চুলের কালার আরও সুন্দর করতে সাহায্য করে থাকে। তাছাড়া চুল পড়া বন্ধ করতে ও আগা ফাটা রোধ করতে সরিষার তেল অনেক ভালো কাজ করে। এবার এ পেস্টটি চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত ভালো করে লাগাতে হবে। লাগানোর পর চুল ঢেকে ৪ থেকে ৫ ঘণ্টা রাখতে হবে। এরপর চুল পানি দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এই প্যাকটি লাগানোর এক থেকে দুই দিন পর চুলে শ্যাম্পু করতে হবে। এতে কালার আরো ভালো করে চুলে বসে যাবে। ভালো ফলাফল পেতে এটি প্রথম মাসে ৪ থেকে ৫ বার ব্যবহার করতে হবে। যাদের চুল কালো তারা প্রথম মাসের পর প্রতি দুই মাস পর পর এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন। আর যাদের চুল সাদা, তারা ব্রাউন কালার ধরে রাখতে মাসে একবার এই হেয়ার প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

হেয়ার প্যাক ২: যুগের পর যুগ ধরে চুল রঙ করতে মেহেদি পাতা ব্যবহৃত হয়ে আসছে। আজও প্রাকৃতিক উপায়ে রঙ করার জন্য এর ব্যবহার রয়েছে। একটি বাটিতে দুই টেবিল চামচ হেনা পাউডার নিতে হবে। আর নিতে হবে একটি বিটরুট। বিটরুটের খোসাসহ ছোট ছোট টুকরা করে কেটে নিতে হবে। এবার একটি পাত্রে পানি নিয়ে গরম করতে হবে। এর মধ্যে বিটের টুকরোগুলো দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। যখন পানি লাল হয়ে যাবে তখন চুলার আঁচ কমিয়ে আরও পাঁচ মিনিট রাখতে হবে। তারপর বিটের পানি ছেঁকে নিয়ে এর মধ্যে হেনা মিশাতে হবে। ঘন ও আঠালো একটা পেস্ট তৈরি করতে হবে। এটি তৈরি করা হলে ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। এবার এটি চুলে লাগিয়ে ৩ ঘণ্টার মতো অপেক্ষা করতে হবে। এভাবে মাসে দুই বার ব্যবহার করতে হবে। তবে চুলের রঙ লাল অথবা বার্গেন্ডি কালার হবে আর চুল হবে সুন্দর ও উজ্জ্বল।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস/এসজেড