.ঢাকা, শনিবার   ২৩ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৯ ১৪২৫,   ১৬ রজব ১৪৪০

‘চীনের যুদ্ধের হুঙ্কারে মোটেও ভীত নয় ভারত’

 প্রকাশিত: ১৭:৪১ ২১ জুলাই ২০১৭  

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বলেছেন, চীনের যুদ্ধের হুমকিতে ভারত মোটেও ভীত নয়। চীন আক্রমণ করলে নিজেদের রক্ষা করার মতো যথেষ্ট সক্ষমতা ভারতের রয়েছে বলেও এ সময় তিনি মন্তব্য করেছেন। বৃহস্পতিবার ভারতীয় সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় এক বিবৃতিতে সুষমা ওই মন্তব্য করেন। একনাগাড়ে যুদ্ধের হুমকি চীনের সরকারি গণমাধ্যমে দিয়ে ভারত ডোকালাম থেকে অবিলম্বে সেনা প্রত্যাহার না করলে ‘গুরুতর ফল’ ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হচ্ছে। চীনের দাবি, ভারত যতক্ষণ না ডোকালাম থেকে সেনা সরাচ্ছে ততক্ষণ কোনো আলোচনা নয় এবং দ্বিপক্ষীয় বৈঠকও হবে না। এ প্রসঙ্গে সুষমা স্বরাজ বলেন, ‘ভারতকে যদি ডোকালাম থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে হয়, তা হলে চীনকেও একই পদক্ষেপ করতে হবে।’ ১৬ জুন যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে, চীনের সেই পদক্ষেপ মেনে নেওয়া ভারতের পক্ষে মোটেও সম্ভব ছিল না বলে তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘ত্রিদেশীয় সীমান্ত লঙ্ঘন করবে বলে ওরা সেদিন বুলডোজার ও নির্মাণ সরঞ্জাম নিয়ে এসেছিল। এটা আমাদের নিরাপত্তা পরিস্থিতিকে বিঘ্নিত করতে পারত।’ সুষমা সকলকে আশস্ত করে বলেন, ‘বিভিন্ন রাষ্ট্রের সঙ্গে ভারত-চীন সীমান্ত উত্তেজনা নিয়ে আমরা কথা বলছি। দেশবাসীর চিন্তা করার কোনো কারণই নেই। কারণ, প্রায়  সব দেশ ওই ইস্যুতে ভারতের পাশে আছে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যেভাবে সরাসরি চীনের নাম করে বিবৃতি দিয়ে চীনের তৎপরতাকে উপেক্ষা করেছেন তা বর্তমান সময়ে তাৎপর্যপূর্ণ বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন। এদিকে ভারত-চীন চলমান সংঘাতের পরিবেশের মধ্যেই আগামী ২৭ জুলাই বেজিং যাবেন ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গোপাল বাগলে অজিত ডোভালের বেজিং যাওয়ার কথা নিশ্চিত করে তিনি ব্রিকস (ব্রাজিল-রাশিয়া-ইন্ডিয়া-চায়না-সাউথ আফ্রিকা) গোষ্ঠীর বৈঠকে যোগ দিতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। আগামী ২৭/২৮ জুলাই ‘ব্রিকস’ দেশগুলোর জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টাদের মধ্যে বৈঠক হবে। চীন আয়োজক দেশ হওয়ার সুবাদে চীনের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ইয়াং জিয়েচি ওই সম্মেলনের সভাপতিত্ব করবেন। ডেইলি বাংলাদেশ/আইজেকে