Alexa চিকিৎসকের কক্ষ থেকেই রোগী ভাগিয়ে নেয় দালালরা

ঢাকা, বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ৫ ১৪২৬,   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

ভেদরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

চিকিৎসকের কক্ষ থেকেই রোগী ভাগিয়ে নেয় দালালরা

জামাল মল্লিক, শরীয়তপর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:০৯ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দিন দিন বাড়ছে দালালদের দৌরাত্ম। এতে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রোগীদের।

হাসপাতালের টিকিট কাউন্টার, রোগীদের বসার টেবিল, চিকিৎসকদের কক্ষে প্রতিনিয়ত ঘুরঘুর করছে ৫-১০ জন দালাল। 

চিকিৎসক-কর্মচারীদের অভিযোগ, দালালরা চিকিৎসকদের কাছ থেকে ব্যবস্থাপত্র লিখিয়ে রোগীদের তাদের পছন্দের ক্লিনিকে নিয়ে যায়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রবেশ পথেই ঝুলছে  মর্ডান ক্লিনিকের বিশাল সাইনবোর্ড। ওই সাইনবোর্ডের কারণে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবনটি চোখেই পড়ে না বলা যায়।

ভুক্তভোগী রোগীরা জানায়, চিকিৎসকদের কক্ষ থেকে বের হওয়ার পরই দালালরা তাদের ব্যবস্থাপত্র ছিনিয়ে নেয়। এরপর বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য জোর করেই প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যায়। এতে দুর্ভোগ পোহানোর পাশাপাশি অতিরিক্ত টাকাও খরচ হচ্ছে তাদের।

দালালদের নেতা উজ্জল হাওলাদার বলেন, আমি মর্ডান ক্লিনিকে চাকরি করি। সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগীদের পরামর্শ দেই। কাউকে জোর করে ক্লিনিকে নেই না।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মেঘনাথ সাহা বলেন, হাসপাতালের ভেতরে দালালদের সক্রিয়তা থাকার কথা নয়। তাদের হাসপাতালে প্রবেশ করতে নিষেধ করা হয়েছে। তবুও রোগীদের অভিযোগ খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শরীয়তপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. খলিলুর রহমান বলেন, দালালদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালাল দমনের জন্য চিঠি দেয়া হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর