চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর জোছনা হত্যার রহস্য উন্মোচন

ঢাকা, রোববার   ০৭ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ২৪ ১৪২৭,   ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর জোছনা হত্যার রহস্য উন্মোচন

চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৬:২০ ৩ এপ্রিল ২০২০   আপডেট: ২১:১৮ ৪ এপ্রিল ২০২০

চুমকি দে (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

চুমকি দে (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

চট্টগ্রামের বাকলিয়ার চাঞ্চল্যকর গৃহবধূ জোছনা আক্তার হত্যার রহস্য উন্মোচন হয়েছে। ঘটনার এক বছর আট মাস পর এ রহস্যের উন্মোচন করলো পুলিশ।

জোছনা আক্তারের সতিন চুমকির স্বীকারোক্তির বরাত দিয়ে এ তথ্য জানান বাকলিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে চট্টগ্রাম আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেন চুমকি। ওইদিন সকালে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

স্বীকারোক্তিতে চুমকি জানান, দাম্পত্য কলহের জেরে স্বামী সুমনের সঙ্গে পরিকল্পনা করে জোছনাকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যা করেন তিনি। পরে বস্তায় ভরে মরদেহ কর্ণফুলী নদীতে ফেলে দেন।

বাকলিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন জানান, ২০১৮ সালের ৩ আগস্ট বাকলিয়ার চাক্তাই খালের ব্রিজের নিচ থেকে জোছনা আক্তারের বস্তাভর্তি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় একই বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর তার স্বামী সুমনকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে সুমন তার আরেক স্ত্রী চুমকি জড়িত বলে জানান। তখন চুমকি পলাতক ছিলেন। বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকেও গ্রেফতার করা হয়।

ওসি আরো জানান, সুমনের দুই স্ত্রী, তারা আলাদা ধর্মের। এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায় ঝগড়া হতো। এরই জেরে জোছনাকে, চুমকি ও সুমন মিলে হত্যা করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/জেএইচ/আরএম