চট্টগ্রামে করোনাকালে অনন্য এক ছাত্রলীগ নেতার গল্প

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ১৯ ১৪২৭,   ১১ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

চট্টগ্রামে করোনাকালে অনন্য এক ছাত্রলীগ নেতার গল্প

আদনান সাকিব, চট্টগ্রাম ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৫৪ ৩ জুন ২০২০   আপডেট: ১৫:৩০ ৩ জুন ২০২০

বিনামূল্যে সবজি দিচ্ছেন আরশেদুল আলম বাচ্চু

বিনামূল্যে সবজি দিচ্ছেন আরশেদুল আলম বাচ্চু

করোনার কারণে থমকে আছে বিশ্ব। দেশে দেশে বিপাকে পড়েছেন অসহায়, গরিব- দুঃখী মানুষ। বিশেষ করে মধ্যবিত্তরা সবচেয়ে বিপাকে রয়েছে। ঠিক তখনই এসব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন চট্টগ্রামের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আরশেদুল আলম বাচ্চু। 

দেশে করোনা পরিস্থিতির শুরু থেকেই দিনরাত এসব মানুষের পাশে রয়েছেন তিনি। তার সঙ্গে কাজ করছেন কয়েকশ ছাত্রলীগ কর্মী। তারা ঘরবন্দী মানুষের ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন খাদ্যসামগ্রী।

এছাড়া চট্টগ্রাম নগরীর প্রতিটি থানায় ছাত্রলীগ কর্মীদের দায়িত্ব বণ্টন করে দিয়েছেন বাচ্চু। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে দেয়া হয়েছে তাদের নম্বর। যে নম্বরগুলোতে যোগাযোগ করলেই পৌঁছে যাচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী।

শুধু তাই নয়, নগরীর অলিগলিতে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বসানো হয় ‘ফ্রি সবজি বাজার’। যা এখনো চলমান। তার এমন মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে অনেকেই। মন কেড়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলমের। বাচ্চুর এমন মহৎ কর্মকাণ্ডকে সাধুবাদ জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সেখানে তিনি আরশেদুল আলম বাচ্চুর প্রয়োজনীয়তার কথাও তুলে ধরেন।

২১ মে চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য অক্সিজেন কনসেনট্রেটর উপহার দিয়েছেন বাচ্চু। মেশিনটি ফিল্ড হাসপাতালের সিইও ডা. বিদ্যুত বড়ুয়ার কাছে হস্তান্তর করেন তিনি।

জানা যায়, শুরুতেই তিনি নগরীর অসহায় দরিদ্র পাঁচ হাজার পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন। এছাড়া তিনি নগরীর বিভিন্ন বস্তি ও পথচারীদের মাঝে নিয়মিতভাবে রান্না করা খাবার প্যাকেট বিতরণ করে যাচ্ছেন।

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে থানাভিত্তিক প্রতিনিধিদের ফোন নম্বরও দিয়েছেন বাচ্চু। কেউ যোগাযোগ করলেই পরিচয় গোপন রেখে বাসায় পৌঁছে দেয়া হচ্ছে খাদ্য। এ পর্যন্ত তিন হাজার মানুষ এ কার্যক্রমের মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা নিয়েছেন। তাদের দেয়া হচ্ছে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজসহ নানা ধরনের শুকনো খাবার উপকরণ।

ডেইলি বাংলাদেশকে আরশেদুল আলম বাচ্চু বলেন, করোনা মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের পাশাপাশি অস্বচ্ছল ও নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যদের খাদ্য সংকটেও পাশে দাঁড়াচ্ছি। তারা যেন কষ্টে না থাকে। তাদের পরিচয় গোপন রেখে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছি। এখনো আমাদের ‘ফ্রি সবজি বাজার’ আছে। এখান থেকে সাধারণ মানুষজন বিনামূল্যে সবজি পাচ্ছেন। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত কচি বলেন, দেশে করোনা পরিস্থিতি বলে কথা নয়, আরশেদুল আলম বাচ্চু সবসময় অসহায় মানুষের পাশে রয়েছেন। যখন শেখ হাসিনার কোনো নির্দেশ আসে তখনই তিনি নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে কাজ করেছেন। করোনা পরিস্থিতিতে তিনি যে অবদান রেখেছেন সেটা বলে শেষ করা যাবে না। তার এ কাজগুলো চট্টগ্রামে নয় সারা বাংলাদেশে নজির হয়ে থাকবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম