ঢাকা, শনিবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ১০ ১৪২৫,   ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪০

ঘুরে আসুন প্রাকৃতিক রহস্যময় বনে

তাইয়্যেবা ইসলাম ইমা ডেইলি-বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ০৪:০৩ ১১ জুলাই ২০১৮  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রাকৃতিক পার্ক গুলোর মধ্যে গর্বিয়াকে একটি রহস্যময় বন বলা হয়। ছবিগুলোর দিকে ভালো ভাবে তাকালে দেখতে পাবেন রহস্যময় এ বনের সৌন্দর্য । এটি প্রাকৃতিক প্রেমীদের জন্য একটি বিস্তৃত গন্তব্য যেখানে সমৃদ্ধ উদ্ভিদ ও প্রাণিRELS4laW1rG9lUS5oETfUuTZ73fDO2CF0dSEzWmR5pw8+0uff4Z8IY6xI4eFi7e5uYP9XBkWSzuOjI4Lr50xmxSKERGiw0R5vy6isuh2QlLdcpkGOl09Ap5w0kiWAe1tKFJkQZFLZ4Rv3WxUJNCASKUkQzVoi0VTaoeSOkbP0UYUtZYoGIPe2aVCp9sDh30UgbUIdmPbmDw5ipnT4wjtLmN+4apwWI+OTqOQKSOfy+HYxCQuXfwS/b5h2Cw9qFc1qBWB1UBQvHmJCoZDASwH5jE+7sck0bZaA9V6iwiS4vGUoKVs7Mm75PPDvZB0Agq36P+pVUNiaEnPYBxydq8gBSXrESLvLKol6aVhgdnYg7NnXsX1+XUsfBWU0e7j334KExMP4uvrcxg5PCjOBZ9c/DdyuayIXXRaiPCVAhYm+hERPfHwcZmoXL06q9y7Wk3qDJezC5ENTteM0GmN4v+r0xlgabdLABNDGnhGmzraMTQ0iEwug3gyJtGKrUaD2Pjk8jEsfD2HZDwq56xJr0QBt7YYpUGpl0gvyknByv2BUbYsQJnvXa7kUK8X5H3m886GvVypo9vTK78nrareUoVBdAw7YvZvMJkEDJGAjnIGRmNZvDHj0TwOuQdx4vgTKO23ILqdxMjIYWT30vj9u7+T95m0ttH7xsS6rVrhfuKC+kDfwAaG3/8H4Mfe+BVGhTQAAAAASUVORK5CYII=" alt="" width="100%" height="100% />

পার্কটি চুনাপাথর এবং ভূমিজলে গঠিত তাই এলাকায় প্রচুর গুহা আছে প্রায় ১০০ মিলিয়ন বছর আগে এ রহস্যময় বনের ইতিহাস শুরু হয়েছিল। এটি প্রাচীন মবস-আচ্ছাদিত বৃক্ষ(ওক,বীচ,পাইন,সাইপ্রাস) দ্বারা আবৃত ঘন বন।

তবে এ বন শুধুমাত্র প্রাকৃতিক বৃক্ষ ও কেবল গাছের ঘন কাঁটাঝোপ নয়। গভীর বন গুলো ধীরে ধীরে প্রশস্ত ঘন এবং লম্বা ঘাস দ্বারা আবৃত। পাশাপাশি আপনি একটি জলাবদ্ধ এলাকাও দেখতে পাবেন। পার্কসংলগ্ন ইস্তিকানা অঞ্চলে প্রায় ৫০০ টি গুহা রয়েছে। এ বনের একটি বৈশিষ্ট্য হলো এটি বিভিন্ন ঋতুতে তার রূপ বদলায়।

গ্রীষ্ম শীত ও বসন্ত ঋতুতে এক অপরূপ সাজে সজ্জিত হয়ে প্রাকৃতিক বনটি। এখানে আপনি স্মৃতিস্তম্ভ ,বনাঞ্চল, জলপ্রপাত ,মিউসিয়াম অফ মধু ,ছোট মন্দির ,ঐতিহ্যবাহী বাস্কো, মৃৎশিল্পের মিউজিয়াম পুরাতন মিল্স চ্যাপল এবং অন্যান্য অনেক আশ্চর্য জিনিস খুঁজে পাবেন। এসব অবশ্য মানুষের দ্বারা নির্মিত তবুও এ সবকিছু গর্বিয়া বনের সৌন্দর্য আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।এখানে প্রবেশের কয়েক মিনিটের মধ্যেই আপনি দেখতে পাবেন হরিণ, বনবিড়াল,আলপাইন, মার্টন ,গোসাপ, বেজি, কাঠবিড়ালি ও হাউক প্রভৃতি।

আপনি কখনো গর্বিয়ায় ভ্রমণ করতে আসলে অবশ্যই এর প্রশংসা করবেন। এটি স্থানীয় এবং পর্যটকদের জন্য বিনোদনের একটি স্থান হয়ে উঠেছে ।এখানে আপনি পর্বতে সাইকেল আরোহন করতে পারবেন,বাফটিং, হাইকিং ,ঘোড়া চালনা, মাছ ধরা ,বাডি এবং জাম্পিং করতে পারবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ