Alexa ঘুমের আগে চুলের যত্ন

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ২ ১৪২৬,   ১৭ মুহররম ১৪৪১

Akash

ঘুমের আগে চুলের যত্ন

 প্রকাশিত: ১৩:৪৩ ৩০ আগস্ট ২০১৮   আপডেট: ১৩:৪৩ ৩০ আগস্ট ২০১৮

রাতে যখন আপনি ঘুমিয়ে পড়েন তখন চুল কি ঘুমের জন্য তৈরি থাকে! ঘুমানোর আগে চুলের যত্ন কিন্তু খুবই জরুরী। কারণ এ সময়ে বেশি ড্যামেজ হয়ে পড়ে। রাতে ঘুমানোর সময় চুল পড়ে যায়। এ সময় চুলের ডগা শিথিল হয়ে যেতে পারে, চুলের আগা ভেঙে যেতে পারে এমনকি চুলের গ্রোথ বন্ধসহ চুল পাতলা হতে পারে। কিন্তু এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে হলে বেশ কিছু জিনিস মানতে হবে। তাই ঘুমানোর পূর্বে চুলের জন্য একটু সময় বরাদ্ধ রাখুন। কিভাবে চুলকে ড্যামেজ থেকে বাঁচিয়ে ঘন লম্বা আর পরিপুষ্ট রাখা যেতে পারে তারই কিছু টিপস জেনে নিন-

১. কখনও নোংরা চুলে ঘুমিয়ে পড়বেননা। সারাদিন যদি আপনি বাইরে থাকেন তাহলে তো একদমই না। মনে রাখতে হবে, সারাদিনের ধুলো বালি, নোংরা পলিউশন চুলের অনেক ক্ষতি করে। নোংরা চুলে ঘুমালে তা আপনার স্ক্যাল্পের পোর্সগুলোকে বন্ধ করে দিতে পারে। তাই চুল যদি নোংরা হয় তবে চুলকে ধুঁয়ে নিতে হবে। তাছাড়া রাতে শ্যাম্পু করে নিলে একটা সুবিধাও আছে, তবে সকালে আর শ্যাম্পু করার জন্য কোন তাড়া থাকবে না। এতে করে সকালের অনেকটা সময়ও বেঁচে যাবে।

 

২. ভেজা চুলে কখনও শুয়ে পড়বেন না। চুল যতটা সম্ভব শুকিয়ে নিতে হবে। তাই বলে হেয়ার ড্রয়ার ব্যবহার না করাই ভালো। চুল শুকানোর জন্য ভালো করে তোয়ালে দিয়ে মুছে নিতে পারেন। তারপর মোটা চিরনি দিয়ে হালকা করে আঁচড়ে নিতে হবে। ভেজা চুলে জোড় দিয়ে আচড়ানো যাবে না। তা চুলের অনেক ক্ষতি করে থাকে। এতে করে চুলের ডগা ও শিথিল হয়ে যেতে পারে। খুব ভালো হয় যদি একটু ড্রাই শ্যাম্পু লাগিয়ে নেওয়া যায়। ভেজা চুলে ঘুমালে চুলের ক্ষতি তো করবেই, আর তাছাড়া ঘুম থেকে উঠলে অনেক জট পড়বে।

৩. মোটা চিরনি দিয়ে ভালো করে জট ছাড়িয়ে নিতে হবে। এর ফলে চুলের বিভিন্ন ময়লা ও ক্যামিকাল অনেকটাই দূর হয়ে যাবে।

৪. অনেকেই চুল খুলে ঘুমিয়ে পড়ে কিন্তু সেটি চুলের খুব ক্ষতি করে। তাই সব সময় চুল বেঁধে ঘুমাতে হয়।  

৫. জট ছাড়ানো হয়ে গেলে একটা ভিটামিন-ই ক্যাপসুল কেটে সেটা মাথায় লাগাতে হবে। যা চুলের খাদ্য হিসেবে খুবই ভালো কাজ করে থাকে। এটা চুল পড়া, নির্জিব ও শুষ্ক চুল, পাতলা চুলে দারুন কাজ করে। ভিটামিন ই ক্যাপসুল যেকোন ওষুধের দোকানে পেয়ে যাবেন। এটা ত্বকের জন্যও খুব ভালো।

৬. সিল্ক বালিশের কভারে ঘুমাতে হবে। কারণ সুতির বালিশের কভার চুলের খুব ক্ষতি করে। অনেকেই কখনও এ বিষয়টি নিয়ে ভেবে দেখেননি। লক্ষ্য করে দেখবেন, রাতে বালিশের কভারে চুলে অনেক ঘসা লাগে যার ফলে চুলে রুক্ষ ভাব দেখা দেয়, চুল ভেঙে যায়, চুলের আগা ফাটা শুরু করে। পুরুষদের ক্ষেত্রেও এ সমস্যা দেখা দেয়। তাই চুলের ক্ষতি থেকে মুক্তি পেতে হলে সুতির কভাবের পরিবর্তে সিল্ক কাপড়ের কভার দিতে হবে। তবে চুল অনেক ভালো থাকবে।

৭. ঘুমানোর আগে চুল হালকা বা ঢিলে ঢালা করে বেঁধে নিন। বেশি শক্ত বা টাইট করে চুল বাঁধলে চুলে টান লাগে, চুল ছিড়ে যেতে পারে। এর ফলে টানাটানি বা ঘষাঘষিতে চুল অনেক দূর্বল হয়ে পড়ে। যার কারণে চুল পড়া সমস্যা দেখা দেয়। তাই ঘুমাতে যাওয়ার পূর্বে চুলে বেণী করতে হবে বা হালকা ঝুঁটি করে বেঁধে নিতে হবে। এছাড়াও চুল নরম একটি কাপড় দিয়েও বেঁধে ঘুমাতে পারেন। এতে চুল অনেক ভালো থাকবে।

৮. ঘুমাতে যাওয়ার আগে চুলে হালকা তেল ম্যাসাজ করেও নিতে পারেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস/এসজেড