গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে ২শ’ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৩ ১৪২৬,   ১২ শাওয়াল ১৪৪০

গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে ২শ’ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২১:১২ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ২১:১২ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বাংলাদেশের ৩৪ জেলার ১৮০টি উপজেলায় গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিচ্ছে এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় বাস্তবায়িতব্য ‘রুরাল কানেক্টিভিটি ইমপ্রুভমেন্ট প্রোজেক্ট’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এ অর্থ দেবে এডিবি।

এ লক্ষ্যে রোববার রাজধানীর শের-ই-বাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এডিবি ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে একটি ঋণচুক্তিও সই করা হয়েছে।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মনোয়ার আহমদ এবং এডিবি’র পক্ষে বাংলাদেশ আবাসিক মিশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ ঋণচুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকার ও এডিবি’র সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনষ্ঠানে জানানো হয়, আলোচ্য প্রকল্পের মাধ্যমে চট্টগ্রাম বিভাগের ৮টি জেলা, ঢাকা বিভাগের ৫টি জেলা, খুলনা বিভাগের ৭টি জেলা, রাজশাহী বিভাগের ৬টি জেলা এবং রংপুর বিভাগের ৮টি জেলার সর্বমোট ১৮০টি উপজেলার গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন করা হবে।

প্রকল্পের মোট প্রাক্কলিত ব্যয় ২৮৫ দশমিক ৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এরমধ্যে এডিবি ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ হিসেবে দেবে। অবশিষ্ট ৮৫ দশমিক ৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাংলাদেশ সরকার যোগান দেবে।

এডিবির দেয়া ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহজ শর্তের অর্ডিনারি অপারেশন্স (কনসেশনাল) লোন (সিওএল) হিসেবে প্রদান করা হবে। সিওএল ঋণের সুদের হার ২ শতাংশ। অবশিষ্ট ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার রেগুলার ওসিআর হিসেবে প্রদান করা হবে। অর্ডিনারি ক্যাপিটাল রিসোর্সেস (ওসিআর) ঋণের সুদের হার লন্ডন ইন্টার ব্যাংক অফার্ড রেট (এলআইবিওআর) ভিত্তিক। এছাড়া দশমিক ১০ শতাংশ হারে ম্যাচুরিটি প্রিমিয়াম ও অব্যয়িত অর্থের ওপর দশমিক ১৫ শতাংশ হারে কমিটমেন্ট চার্জ ওসিআর ঋণের জন্য প্রযোজ্য হবে। এডিবি প্রদেয় এ ঋণ ৫ বছর গ্রেস পিরিয়ডসহ ২৫ বছর পরিশোধযোগ্য।

স্থানীয় সরকার বিভাগ উল্লিখিত প্রকল্পের উদ্যোগী বিভাগ এবং স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর বাস্তবায়নকারী সংস্থা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। প্রকল্পের বাস্তবায়নকাল জুলাই ২০১৮ হতে জুন ২০২৩ পর্যন্ত। প্রকল্পটি গত ৯ অক্টোবর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (একনেক) সভায় অনুমোদিত হয়।

প্রকল্পের উদ্দেশ্য হল, উৎপাদনশীল কৃষি এলাকায় উচ্চ আয় সৃষ্টি ও আর্থসামাজিক কেন্দ্রে যাতায়াত সুগম করতে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে গ্রামীণ সংযোগ উন্নয়ন করা এবং কার্যকর প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অংশীজনের সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। প্রস্তাবিত প্রকল্পের মাধ্যমে ২ হাজার ২১০ কিলোমিটার উপজেলা সড়ক ও ৪৯৫ কিলোমিটার ইউনিয়ন সড়ক অবকাঠামোসমূহকে জলবায়ু সহিষ্ণু এবং নিরাপত্তার বৈশিষ্ট্য সম্বলিত আবহাওয়া উপযোগী মানে উন্নীত করা হবে। সূত্র: বাসস।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআইএস