গ্যালাক্সি এস২০ নিয়ে যে কারণে এত আলোচনা

ঢাকা, বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৫ ১৪২৬,   ১৪ শা'বান ১৪৪১

Akash

গ্যালাক্সি এস২০ নিয়ে যে কারণে এত আলোচনা

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:০৯ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

গ্যালাক্সি এস২০

গ্যালাক্সি এস২০

স্যামসাং ফ্ল্যাগশিপ ফোন ‘গ্যালাক্সি এস২০’ নিয়ে প্রযুক্তি বিশ্বে চলছে নানা আলোচনা। স্মার্টফোনটি ফাইভ-জি ব্যবহার উপযোগী এবং এতে রয়েছে ১০০এক্স জুম ক্যামেরা। সবচেয়ে চমকপ্রদ বিষয় হলো, গ্যালাক্সি এস২০-এ এমন অনেক ফিচার আছে যা অ্যাপলের সর্বশেষ আইফোন ১১ সিরিজে নেই। ফোনটির কিছু আলোচিত দিক নিয়ে আলোচনা করা হলো-

ক্যামেরা

মেগাপিক্সেলের সেন্সর কম থাকলেও আইফোনের ছবির মান নিয়ে খুশি ব্যবহারকারীরা। যেমন- আইফোন ১১ সিরিজে সর্বোচ্চ ক্যামেরা ১২ মেগাপিক্সেলে। কিন্তু গ্যালাক্সি এস২০ এ দেয়া হয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। তবে মানের দিক থেকে আইফোনের ক্যামেরাকে সাধারণ হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না। আলট্রা এস২০ এর ক্যামেরা অন্যদের তুলনায় বেশি উন্নত কারণ এতে একটি পেরিস্কোপ সন্নিবেশিত করা হয়েছে। এটি একটি প্রিজমকে কাজে লাগিয়ে আলো ডিভাইসটির ভেতরে প্রতিফলিত করে, যার কারণে দীর্ঘ লেন্স এবং বড় সেন্সর ব্যবহার করে ওয়াইড-অ্যাঙ্গেলে ছবি তোলা সম্ভব হয়।

জুম করার সক্ষমতা

হুয়াওয়ের পি৩০ হ্যান্ডসেটের তুলনায় দ্বিগুণ জুম করার সক্ষমতা পেলো স্যামসাং। তবে আসলেই এই সক্ষমতার কতটুকু বাস্তবে ব্যবহার করা যাবে তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। এ বিষয়ে মিস্টার জেরোনিমো বলেন, ‘১০০এক্স জুম দিয়ে তোলা ছবি আপাতদৃষ্টিতে ব্লার বা ঘোলা মনে হবে, তাই আমার মনে হয় না যে মানুষ এটা সব সময় ব্যবহার করবে। কিন্তু দোকানে যখন এটিকে দেখানো হবে তখন বিস্ময়কর বলে মনে হবে। আর ২০এক্স বা ৩০এক্স ব্যবহার করেও খুব ভালো ছবি তোলা সম্ভব।’

সিঙ্গেল টেক

গ্যালাক্সি এস২০ ফোনের নতুন ফিচার ‘সিঙ্গেল টেক’ নিয়েও বেশ আলোচনা হচ্ছে। এ ফিচারের মাধ্যমে ভিডিও করা অবস্থায় কয়েকটি মোডে ছবি তোলা যাবে। কাজটি করতে শুধু শাটার বাটন প্রেস করলেই হবে। আইফোন থেকেও ভিডিও করা অবস্থায় ছবি তোলা যায়, তবে ভিন্ন ভিন্ন মোডে নয়।

ফাইভজি সাপোর্ট

আইফোন ১১ সিরিজের কোনো মডেলেই ফাইভজি সাপোর্ট নেই। ব্যবহারকারীদের জন্য যা ছিল হতাশাজনক বিষয়। কিন্তু গ্যালাক্সি এস২০ সিরিজের প্রতিটি মডেলেই আছে ফাইভজি সাপোর্ট। আইফোনে ফাইভজি ব্যবহার করতে চাইলে আরো কয়েক মাস অপেক্ষায় থাকতে হবে।

নচ

আইফোনসহ অনেক নামিদামি কোম্পানীই নচ ট্রেন্ড থেকে বের হতে পারেনি। কিন্তু স্যামসাং তাদের নতুন ফ্ল্যাগশিপে কোনো নচ রাখেনি। এর বিপরীতে তারা ব্যবহার করেছে ‘ইনফিনিটি-ও’ ডিসপ্লে। এতে করে নচের জন্য ডিসপ্লের অংশ ছেঁটে ফেলতে হয়নি স্যামসাংকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে