গৌরীপুরে আসামিদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ-লুটপাট

ঢাকা, সোমবার   ২৪ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১১ ১৪২৬,   ২০ শাওয়াল ১৪৪০

গৌরীপুরে আসামিদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ-লুটপাট

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৬:০৪ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৬:০৪ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে সহনাটি ইউপির টেঙ্গাপাড়া গ্রামে তাঁতীলীগ নেতা ইদ্রিস আলী হত্যা মামলার আসামিদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট করেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার রাতে এ অগ্নিসংযোগ ঘটনা ঘটে। 

সোমবার  সরেজমিনে দেখা গেছে, হত্যা মামলার আসামি আব্দুল কাদির ও তার ভাতিজা আল আমিনের ৩টি ঘর আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়া মামলার অপর আসামিদের ঘরের সম্পূর্ণ মালামাল ও গরু-ছাগল লুট করা হয়েছে।

নিহত ইদ্রিস আলীর ভাতিজা কবির আহমেদ কাজল বলেন, তার চাচা শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঙ্গে ২ জানুয়ারি সকাল ১০ টায় বাড়ির পাশে আলু চাষ নিয়ে আলী হোসেনের ছেলে প্রতিবেশী আব্দুল কাদিরের বাক-বিতন্ডা হয়। এর জেরে পরদিন ভোরে আব্দুল কাদির গংরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে পরিকল্পিতভাবে অতর্কিতে তাদের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তিনিসহ তার বাবা হাদিস মিয়া, চাচা ইদ্রিস আলী, আজিজুল হাকিমকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়। তিনিসহ আহত তিন চাচাকে ওই দিনই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭ দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে ১০ জানুয়ারি দিবাগত রাত পৌনে ২ টায় তার চাচা ইদ্রিস আলী মারা যান।

নিহত ইদ্রিস আলীর ভাই আজিজুল হাকিম বলেন, আসামি পক্ষের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনার সঙ্গে তারা জড়িত নন। আসামি পক্ষের লোকজন তাদেরকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে ষড়যন্ত্রমূলক নিজেদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা ঘটিয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা আবুল কাশেমের স্ত্রী রুমেলা খাতুন, আব্দুল আলীর ছেলে বাচ্চু মিয়া, বাবর আলীর ছেলে দুলাল মিয়া বলেন, রোববার রাত ১১টায় আব্দুল কাদিরের নারী-পুরুষ শূন্য বাড়িতে আগুন জ্বলতে দেখেন। এসময় তারা প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় আগুন নেভান।

গৌরীপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, নিহতের ছোট ভাই শফিকুল ইসলাম ফারুক বাদী হয়ে নাম উল্লেখসহ ১৮ জন ও অজ্ঞাত ৬ জনকে আসামি করে গৌরীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। এ মামলার আসামি আব্দুল কাদিরের স্ত্রী রোজিনা ও ভাতিজা আল মামুনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আসামি পক্ষের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনায় এ পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেননি। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ