গোয়ালন্দের চেয়ারম্যান হতে ৭ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা

ঢাকা, বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৫ ১৪২৬,   ১৪ শা'বান ১৪৪১

Akash

গোয়ালন্দের চেয়ারম্যান হতে ৭ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:১৮ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

২৯ মার্চ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষদিন বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত সাত প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলার সহ-সভাপতি মোস্তফা মুন্সি নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিস প্রাঙ্গনে উপস্থিত হন। পরে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান মিয়া, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) বিপ্লব ঘোষ, গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র শেখ মো. নিজাম, দেবগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম, দৌলতদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মণ্ডল, ছোট ভাকলা ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

অপরদিকে গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মণ্ডল বিকেল ৩টার দিকে বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসে আসেন। সেখানে কর্মীদের রেখে পাঁচজনের প্রতিনিধি দল নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

এছাড়াও বিএনপি মনোনীত মাহবুব আলম, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম মাহবুবুর রাব্বানী, ছোট ভাকলা ইউপির সাবেক চোয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী মিয়া, সদ্য প্রয়াত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলামের ছেলে ডা. আরিফুজ্জামান ও শেখ সুলতান নিজ নিজ মনোনয়নপত্র জমা দেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. নিজাম উদ্দিন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আগামী ২৯ মার্চের নির্বাচনে ৯১ হাজার ৬৩৫ জন ভোটারের মধ্যে ৪৬ হাজার ২৬৪ জন পুরুষ ও ৪৫ হাজার ৩৭১ জন নারী ভোটার রয়েছেন। আগামী ১ মার্চ মনোনয়নপত্র বাছাই ও ৮ মার্চ প্রত্যাহারের শেষ দিন।

উল্লেখ্য, গত বছর ২১ মার্চ গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবিএম নুরুল ইসলাম। পরে গত বছরের ১৭ অক্টোবর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি ইন্তেকাল করেন। এ কারণে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন হতে যাচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম