ঢাকা, সোমবার   ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৬ ১৪২৫,   ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪০

শশী থারুর অন্যরকম বই: প্রসঙ্গ মোদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: international-desk

 প্রকাশিত: ০০:২৬ ১১ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ০০:২৬ ১১ অক্টোবর ২০১৮

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

কাটখোট্টা লেখার জন্য শশী থারুর বরাবরই সমাদৃত। স্বভাবজাত লেখা নিয়ে আবারো বিদ্যানুরাগী সমাজের জন্য বই লিখেছেন তিনি। তাও আবার নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে।

আবারও একটি নতুন শব্দ নিয়ে হাজির হয়েছেন ভারতের কংগ্রেস নেতা শশী থারুর।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে লেখা তার নতুন বই সম্পর্কে শশী থারুর বুধবার এক টুইটে বলেন, '৪০০ পৃষ্ঠার বইটি নেহাতই ফ্লকসিনোসিনিহিলিপিলিফিকেশনের অনুশীলন নয়।'

অক্সফোর্ড ডিকশনারির উদ্ধৃতি দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস পত্রিকা জানায়, উচ্চারণের অযোগ্য এই শব্দটির মানে হচ্ছে 'কাউকে মূল্যহীন বিবেচনা করার অভ্যাস বা কর্মকাণ্ড'।

'আমার নতুন বই 'প্যারাডক্সিকাল প্রাইম মিনিস্টার (আপাতবিরোধী প্রধানমন্ত্রী)'-এ ৪০০ পৃষ্ঠা জুড়ে নেহাত ফ্লকসিনোসিনিহিলিপিলিফিকেশন চর্চার চেয়ে বেশি কিছু করা হয়েছে। কেন তা বলছি, জানতে আগে-ভাগেই বইটির অর্ডার দিন!' টুইটে বলেন শশী থারুর।

চমকদার শব্দটির ব্যবহারে ভড়কে গিয়ে টুইটার ব্যবহারকারীরা শশী থারুর বই নিয়ে আলোচনার বদলে শব্দটি নিয়েই আলোচনা করতে থাকেন।

অ্যামাজন ডটকমে বইটির সম্পর্কে বলা হয়েছে, 'শশী থারুর আপাতবিরোধী ব্যক্তিত্ব নরেন্দ্র মোদির এক সম্মোহনী প্রতিকৃতি তুলে ধরেছেন। ভারতের সবচেয়ে বিতর্কিত প্রধানমন্ত্রীর সম্পর্কে এমন ধ্বংসাত্মক রকমের নিখুঁত ও সুলিখিত বর্ণনা আগে কখনো হয়নি।'

স্বল্প প্রচলিত শব্দের প্রতি শশী থারুরের ভালোবাসা সর্বজনবিদিত। ১৭টি বইয়ের লেখক থারুর আগেও কঠিন সব শব্দের ব্যবহারের কারণে আলোচনা এসেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি