গুয়াতেমালায় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত: নিহত ৯৯

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪২৬,   ১৭ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

গুয়াতেমালায় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত: নিহত ৯৯

 প্রকাশিত: ২২:৩২ ৭ জুন ২০১৮  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মধ্য আমেরিকার দেশ গুয়াতেমালায় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯৯ জনে পৌঁছেছে। বিগত চার দশকের মধ্যে এটিই দেশটির সবচেয়ে ভয়াবহ অগ্ন্যুৎপাত

রোববার দেশটির সক্রিয় ফুয়েগো আগ্নেয়গিরিতে ওই অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটে। দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ফরেনসিক অ্যাজেন্সির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দিয়েছে।

এর আগে বুধবার দেশটির পক্ষ থেকে বলা হয়, অগ্ন্যুৎপাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৫ জন হয়েছে। এ ছাড়া ১৯২ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানান দেশটির কর্মকর্তারা। আগ্নেয়গিরির উৎক্ষিপ্ত লাভা ও কাদায় অন্তত দুটি গ্রাম ঢেকে গেছে।

এদিকে, মঙ্গলবার নতুন করে বিস্ফোরণে উষ্ণ গ্যাস ও গলিত শিলা উৎক্ষিপ্ত হওয়ায় উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হয়।

রোববারের অগ্ন্যুৎপাতে দেশটির প্রায় ১৭ লাখ মানুষ ক্ষয়ক্ষতির স্বীকার হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

গুয়াতেমালার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব সেইসমোলজির প্রধান এডি স্যানচেজ বলেছেন, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বড় ধরনের কোনো বিস্ফোরণের সম্ভাবনা নেই।

অন্যদিকে, দেশটির ডিজাস্টার রিলিফ অ্যাজেন্সির প্রধান সার্জিও কাবানাস বার্তা সংস্থা এএফপিকে গতকাল বলেন, আমরা ১৯২ জন লোককে নিখোঁজের তালিকায় পেয়েছি। এখন তাদের নাম, পরিচয় ও নিখোঁজের স্থান শনাক্ত করা হচ্ছে।

সার্জিও কাবানাস জানান, রোববার অগ্ন্যুৎপাতের আগে কোনো সতর্কতা জারি করা হয়নি।

তিনি জানান, অগ্ন্যুৎপাতের সংকেত পেলে তাৎক্ষণিকভাবে লোকজন কী করবে স্থানীয়দের এমন প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু অগ্ন্যুৎপাত এতো দ্রুত হয়েছে যে, এলাকাবাসী সে অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে পারেনি।

স্থানীয় বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৭৪ সালের পর এটি সবচেয়ে বড় অগ্ন্যুৎপাত

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি

 

Best Electronics