গাজীপুরে বিএনপির মানববন্ধনে লাঠিচার্জ

গাজীপুর প্রতিনিধিডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

গাজীপুরে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জেলা ও মহানগর বিএনপির করা মানববন্ধনে লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে জেলা শহরের বিএনপি কর্যালয়ের সামনে রাজবাড়ী সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জেলা মহিলা দলের সাবেক সভানেত্রী আনোয়ারা বেগমসহ অন্তত দশজন আহত হয়েছেন।  এসময় বিএনপির প্রয়াত নেতা আসম হান্নান শাহের ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নানসহ ৯জনকে আটক করেছে পুলিশ। 

গাজীপুর মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মো. সোহরাব উদ্দিন বলেন, ‘বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কার্যালয়ের সামনে বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করছিলাম। মানববন্ধনের শেষ মুহূর্তে হঠাৎ করে পুলিশ ফাঁকা গুলি করে মানববন্ধনে অংশ নেয়া নেতা-কর্মীদের অতর্কিত লাঠিপেটা শুরু করে। মুহূর্তেই নেতা-কর্মীরা দিগবিদিক ছোটাছুটি করতে থাকেন। পুলিশের লাঠিপেটায় জেলা মহিলা দলের সাবেক সভানেত্রী আনোয়ারা বেগমসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এসময় রিয়াজুল হান্নান ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর বিএনপি নেতা হান্নান মিয়া হান্নুসহ ১০/১২ নেতা-কর্মীকে ধরে নিয়ে যায় পুলিশ।

জয়দেবপুর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে সমাবেশ, যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটানো, পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ এবং পুলিশের কাজে বাধা দেয়ায় তাদের সরিয়ে দিতে গেলে পুলিশের সঙ্গে তাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। বিএনপি নেতাকর্মীরা ইটপাটকেল ছুঁড়লে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে ছুঁড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় চার পুলিশসহ আহত হন অন্তত ১২ জন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১০জনকে আটক করে। এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।
গাজীপুরের অতিরিক্ত এসপি রাসেল শেখ জানান, ওই ঘটনায় পুলিশ নয়জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের মধ্যে শাহ রিয়াজুল হান্নান ও সিটি কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ বাকিদের ভিডিও ফুটেজ দেখে যাচাই বাচাই করে কোর্টে চালান করা হবে।

অপরদিকে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা ও বিচারিক আদালত কারাগারে স্থানান্তরের প্রতিবাদে সোমবার সকালে মহানগরের টঙ্গীর চেরাগআলীস্থ সফিউদ্দিন সরকার কমপ্লেক্স এলাকায় মানববন্ধন করেছে থানা বিএনপি ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। শ্রমিকদল কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরি সভাপতি আলহাজ্ব সালাহ উদ্দিন সরকারের নেতৃত্বে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। 

টঙ্গী থানা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ইসমাইল সিকদার বসুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি মো. সরাফত হোসেন, আবদুল মোমেন, জাহাঙ্গীর আলম, শেখ মোহাম্মদ আলেক, লিয়াকত আলী, জসিম উদ্দিন দেওয়ান,  মোসলেম উদ্দিন, লিটন খান, হারিস আহমেদ, জহিরুল ইসলাম, আমীর হোসেন, ইব্রাহীম মিয়া, ভুট্টু মৃধা, গাজীপুর মহানগর জিয়া পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট এনামুল হুদা সরকার মনি প্রমুখ। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর