গরিবের ১০ টাকা কেজির চাল বিত্তশালীদের ঘরে 

ঢাকা, শনিবার   ০৪ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২১ ১৪২৬,   ১০ শা'বান ১৪৪১

Akash

গরিবের ১০ টাকা কেজির চাল বিত্তশালীদের ঘরে 

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৪৬ ১৬ মার্চ ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নীলফামারীর ডোমারে গরিব মানুষের জন্য ১০ টাকা কেজি দরের চাল বিক্রির কার্ড বিত্তশালীদের দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

গরিব ও অস্বচ্ছলদের জন্য সরকারের দেয়া খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় অনেক ধনী শ্রেণির লোকজনও এসেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 

উপজেলার জোড়াবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসানের বিরুদ্ধে ধনী মানুষদের মাঝে গরিবের ১০ টাকার চালের কার্ড দেয়ার অভিযোগ করেন ইউপি সদস্য আব্দুস ছালাম। 
 
সরকারের উক্ত সুবিধার আওতায় রয়েছেন সমাজের একেবারে নিম্নবিত্ত, খেটে খাওয়া গৃহহীন, ভূমিহীন দিনমজুর পর্যায়ের লোকজন।

তবে ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসান ক্ষমতার অপব্যবহার করে ব্যবসায়ী, পাকা বাড়ীওয়ালাসহ সরকারের অন্যান্য সামাজিক সুবিধার আওতাধীন সুবিধাভোগীসহ আর্থিকভাবে স্বচ্ছল ব্যক্তিদের কার্ড দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুল মালেক, লিটন, লাবু এরা একই পরিবারের সদস্য। ব্যবসায়ী নুর ইসলাম বয়স্ক ভাতাভোগী একজন সুবিধাভোগী। আমির হোসেন তিনি একজন ব্যবসায়ী। বেলাল হোসেন ও সুমন ইসলাম এ দুজন ভিজিডি কার্ডধারী। আরো অনেক সুবিধাভোগী ও বিত্তবানদের নাম এসেছে এ তালিকায়। 

জোড়াবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসান তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের বিষয়টি অস্বীকার করলেও ত্রুটিপূর্ণ তালিকার কথা স্বীকার করেন। তিনি তালিকা সংশোধনের কাজ চলছে বলে জানান। 

এ ব্যাপারে ইউএনও শাহিনা শবনম অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদন পেলেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডোমার উপজেলার ১০ টি ইউপিতে ৩৭ জন ডিলারের মাধ্যেমে ১৮ হাজার ৬ শ ৮৫ জন তালিকাভুক্ত ভোক্তার মধ্যে মাসিক ৩০ কেজি হারে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করছে সরকার।  

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে