গতি বেড়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১২ ১৪২৬,   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

গতি বেড়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের

এস রাকিব ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:১৩ ২২ মে ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

দীর্ঘ আড়াই মাস পর সুস্থ হয়েই রোববার সচিবালয়ে অফিস করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এরপর সোমবার বনানীর সেতু ভবনেও অফিস করেন তিনি। ফিরে এসেই গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি ফাইলে স্বাক্ষর করেন সরকারের এ মন্ত্রী। তার ফিরে আসাতে কাজের গতি বেড়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে।

এর আগে, গত ৩ মার্চ সকালে বুকে প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি হন ওবায়দুল কাদের। সেখানে এনজিওগ্রাম করার পর তার করোনারি ধমনিতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। সেদিন তাকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরে উপমহাদেশের বিখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠির পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য ৪ মার্চ তাকে সিঙ্গাপুর নেয়া হয়। সেখানে দীর্ঘ দুই মাসের বেশি সময় ধরে তার চিকিৎসা চলে। এরপর সুস্থ হয়ে গত ১৫ মে (বুধবার) তিনি দেশে ফিরে আসেন। দেশে ফিরেই ওইদিন সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে স্ত্রীকে নিয়ে গণভবনে যান ওবায়দুল কাদের।

এরপর রোববার সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এবং সোমবার সেতু বিভাগে অফিস করেন তিনি। মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে আসাকে জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, সড়ক পরিবহনে শৃঙ্খলা বিধান ও বড় প্রকল্পগুলো যথাসময়ে শেষ করাই এ ইনিংসের বড় চ্যালেঞ্জ।

তিনি আরো বলেন, এবারে বিআরটিসি’র ঈদ স্পেশাল সার্ভিসে থাকছে প্রায় ১১শ’ বাস। এছাড়া জরুরি অবস্থা মোকাবিলায় পঞ্চাশটি বাস স্ট্যান্ডবাই রাখা হবে। আগামী ২৫ মে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নবনির্মিত ২য় মেঘনা ও গোমতী সেতু এবং জয়দেবপুর-টাঙ্গাইল মহাসড়কে দু’টি সেতু, দু’টি ফ্লাইওভার এবং চারটি আন্ডারপাস যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেবেন। এতে এ দু’টি মহাসড়ক দিয়ে যাত্রীদের ঘরে ফেরা নির্বিঘ্ন হবে।

একসময় রাস্তায় দাপিয়ে বেড়িয়েছেন ওবায়দুল কাদের। সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে নিজেই নেমেছিলেন বিভিন্ন অভিযানে। হঠাৎ গুরুতর অসুস্থ হওয়ায় জনমনে তৈরি হয় শঙ্কা। গতি কমে মন্ত্রণালয়েরও। তবে সুস্থ হয়ে আবারো ফিরে আসায় মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মনে আশার সঞ্চার হয়েছে। 

সুস্থ হয়ে মন্ত্রীর ফিরে আসা নিয়ে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম বলেন, মন্ত্রণালয়ের সবাই মন্ত্রীর প্রতীক্ষায় ছিলেন। অবশেষে সুস্থ হয়ে তিনি আবারো আমাদের মাঝে ফিরে এসেছেন। তার ফিরে আসাতে মন্ত্রণালয়ের কাজের গতি আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে। তিনি এরইমধ্যে কিছু ফাইলও সই করেছেন।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. আবু নাছের ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, মন্ত্রীর অবর্তমানে বিভিন্ন ফাইল প্রধানমন্ত্রীই সই করেছিলেন। মন্ত্রী সুস্থ হয়ে ফিরে আসায় ফাইলগুলো এখন তিনিই সই করছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ