গজব পড়বে, ফাঁসির দণ্ড পেয়ে বাবর

ঢাকা, শুক্রবার   ২১ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৭ ১৪২৬,   ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

গজব পড়বে, ফাঁসির দণ্ড পেয়ে বাবর

 প্রকাশিত: ১৩:৫৮ ১০ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৪:০৪ ১০ অক্টোবর ২০১৮

সংগৃহিত

সংগৃহিত

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় ফাঁসির দণ্ডের পর লুৎফুজ্জামান বাবর বলেছেন, ‘আল্লাহর গজব পড়বে’।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট যে গ্রেনেড দিয়ে হামলা চালানো হয়, সেগুলো বাবরই জঙ্গিদের হাতে তুলে দেন বলে আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে বলেছেন মুফতি আবদুল হান্নান। জানান, হামলার আগে মোট তিনটি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সে সময়ের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

সকালে সাদা রঙের একটি মাইক্রোবাসে করে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে আদালতে আনা হয়। বিচারক শাহেদ নূর উল্লাহ বেলা ১১টা ৩৮এ রায় পড়া শুরু করেন। শেষ হয় ১২টার দিকে।

সাদা রঙের ফতোয়া এবং চশমা পরা বাবর তখন অন্য আসামিদের সঙ্গে কাঠগড়ায়। ভেতরে পুলিশ সব আসামিকে ঘেরাও করে রাখে।

রায় ঘোষণার পুরোটা সময় বাবরসহ সব আসামি ছিলেন নিরব। আর শেষ পর্যায়ে বিড়বিড় করে প্রতিক্রিয়া জানান বাবর। তিনি বলেন, ‘আল্লাহ বিচার করবেন, গজব পড়বে।’

নিজেকে নির্দোষও দাবি করে বাবর বলেন, ‘আমি তারেক রহমান ও খালেদা জিয়ার কথা বলিনি বলেই সাজা দেয়া হলো।’

রায় ঘোষণার পর গাড়িতে করে কারাগারে নেয়ার সময় সবার উদ্দেশ্যে হাতও নাড়ান বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে তুমুল সমালোচিত স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

গ্রেনেড হামলা মামলা নিয়ে বাবর ফাঁসির দণ্ড পেয়েছেন দ্বিতীয়বার। ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় ২০১০ সালের ৩০ জানুয়ারিও ফাঁসির দণ্ড পান তিনি। সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ আ স ম কিবরিয়া হত্যা মামলায়ও তার বিচার চলছে। এখানেও দোষী প্রমাণ হলে সর্বোচ্চ সাজা হতে পারে তার।

১০ ট্রাক অস্ত্র মামলাতেও সাজা পেয়ে অভিশাপের সুরে কথা বলেছিলেন বাবর। ওদিন কাঠগড়ায় তিনি ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, ‘আমি ন্যায়বিচার পাইনি। বিচারকের পরও বিচারক আছেন। তিনি আল্লাহ। আখেরাতে আমি সেই বিচারকের কাছ থেকে ন্যায়বিচার পাব।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এলকে