Alexa খেলাপি আদায়ে কোম্পানি আইন সংশোধন হচ্ছে: অর্থমন্ত্রী

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯,   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬,   ১৫ সফর ১৪৪১

Akash

খেলাপি আদায়ে কোম্পানি আইন সংশোধন হচ্ছে: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৮:২৬ ৯ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৯:৫২ ৯ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

কিছু আইনগত জটিলতায় খেলাপি ঋণ আদায় করা যাচ্ছে না উল্লেখ করে নবনিযুক্ত অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, দেশে ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণ আদায়ে কোম্পানি আইনের সংশোধন করা হবে। এ লক্ষ্যে আইনটিতে প্রয়োজনীয় সংশোধন আনতে কাজ চলছে বলেও জানালেন তিনি। 

বুধবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংকিং খাত আমাদের কাছে অন্যান্য খাতের চাইতেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এ খাতে কিছু সমস্যা আছে। আমরা সমস্যা মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে যেতে চাই।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ব্যাংকিং কোম্পানি আইনে কিছু ক্রুটি বিচ্যুতি রয়ে গেছে। এতে আইনেরও যথেষ্ট অভাব রয়েছে। আবার কিছু আইনের কারণে অন্য আইনগুলোও বাস্তবায়ন করা যায় না। এ কারণে খেলাপি ঋণ আদায় করা যাচ্ছে না বলে জানান অর্থমন্ত্রী। এ লক্ষ্যে উল্লেখিত এসব আইন সংশোধন করা হবে।

মন্ত্রী জানান, ১৯৭২ সালের ব্যাংকিং কোম্পানি আইনে ফিরে গিয়ে এই সংশোধনী আনা হবে। যাতে করে কোনো ঋণ খেলাপিই আইনের ফাঁক গলে বেরিয়ে না যেতে পারে।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, প্রাইভেট, পাবলিক যে ব্যাংকের টাকাই বেহাত হোক তা চাই না। কারণ এই টাকা জনগণের। জনগণের টাকা বেহাত হতে দিব না।

তিনি বলেন, ঋণের টাকা ফেরত দিতে হবে। এই নিশ্চয়তা তৈরি করতে হবে। এই জন্য কিছু কিছু জায়গায় আইনে হাত দিতে হবে। বিধির পরিবর্তন করতে হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, কি কারণে, কার কারণে টাকা ঋণ নেওয়া টাকা পাচ্ছি না, তা খুঁজে বের করা হবে। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীরা কেউ ঋণ খেলাপিদের সহযোগিতা করছে কিনা তাও খুঁজে বের করা হবে। কারো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কারোর বিরুদ্ধেই অত্যন্ত কঠোর না হওয়ার কথা বলে তিনি বলেন, সব কর্মকাণ্ডই পরিচালিত হবে টাকা উদ্ধারের জন্য। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে জনবল সংটক আছে। সংকট দূর করতে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআইএস