খুলনায় খাল দখলমুক্ত করার দাবি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১৩ ১৪২৬,   ২২ শাওয়াল ১৪৪০

খুলনায় খাল দখলমুক্ত করার দাবি

খুলনা প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৬:০৮ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৬:০৮ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

খুলনার ময়ূর নদীসহ ২২টি খালের অবৈধ দখল উচ্ছেদ করার দাবি জানিয়েছেন উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির নেতারা।

সোমবার দুপুরে জেলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত এ দাবি জানান সংগঠনের মহাসচিব শেখ আশরাফ উজ জামান।

লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, খুলনা মহানগরীতে জলাবদ্ধতা নিরসনে বর্তমান মেয়রের নির্বাচনী ইশতেহারের প্রথম প্রতিশ্রুতি ছিল অগ্রাধিকার ভিত্তিতে খালের অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা। ময়ূর নদীসহ সংযুক্ত ২২টি খালের ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংস্কারের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা দূরীকরণসহ পরিকল্পিত, পরিচ্ছন্ন ও আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তুলবেন। অনতিবিলম্বে এর বাস্তবায়ন চাই। এ প্রসঙ্গে মহাসচিব শেখ আশরাফ উজ জামান কয়েকটি দাবি উল্লেখ করেন।

দাবি গুলো হলো- ১) ময়ূর নদীসহ সংযুক্ত ২২ টি খালের সব অবৈধ দখল উচ্ছেদ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কার। ২) জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ব্যবস্থা গ্রহণ ও বর্ষাকালীন সময় পাম্প হাউজের মাধ্যমে দ্রুত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা। ৩) খুলনা শহরে সব সরকারি-বেসরকারি পুকুর ও জলাশয় সংরক্ষণ। ৪) শহরের ফুটপাত দখল মুক্ত করা। ৫) শত বছরের পুরাতন বড় বাজারকে আধুনিকায়নের আওতায় আনা, রেলওয়ের অব্যবহৃত জমির পূর্ণ ব্যবহার নিশ্চিত করা। ৬) আধুনিক বাণিজ্য কেন্দ্র তৈরির লক্ষ্যে যানজট মুক্ত খুলনা নগরী গড়া।

৭)  রূপসা ও ভৈরব নদীর তীর ঘেষে শহর রক্ষা বাঁধসহ পরিকল্পিত রিভারভিউ রোড ও দৃষ্টি নন্দন পার্ক নির্মাণ করা। ৮) খুলনা-জোড়াগেট-ফুলবাড়িগেট-শিরোমনি-ফুলতলা সড়ক ডিভাইডারসহ ৬ লেনে উন্নিতকরণ। ৯) খুলনা রেলস্টেশন-পাওয়ার হাউজ মোড় থেকে (শেরে বাংলা রোড) খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়-জিরোপয়েন্ট পর্যন্ত ডিভাইডারসহ চার লেনে উন্নীতকরণ প্রভৃতি দাবিগুলো বাস্তবায়নে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানানো হয়।

এ দাবি আদায়ের লক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আগামী ২১ জানুয়ারি সকাল ১১ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত নগর ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি এবং পরে মেয়র বরাবর স্মারকলিপি প্রদান। ২২ জানুয়ারি ডিসি বরাবর স্মারকলিপি প্রদান। ২৩ জানুয়ারি বিভাগীয় কমিশনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কমিটির সভাপতি শেখ মোশাররফ হোসেন, শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ মো. জাফর ইমাম, প্রকৌশলী আজাদুল হক, জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এসএম হাবিব, সাধারণ সম্পাদক মো. সাহেব আলী, উন্নয়ন কমিটির নেতা শাহিন জামাল পন প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর