তারেকের ফাঁসি চান জজ মিয়া

ঢাকা, রোববার   ১৯ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৬,   ১৩ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

তারেকের ফাঁসি চান জজ মিয়া

 প্রকাশিত: ১৬:০৮ ১০ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৬:২১ ১০ অক্টোবর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার আপিলের রায়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ফাঁসি চেয়েছেন এ ঘটনায় বলির পাঁঠা হওয়া জজ মিয়া। তিনি বলেন, উচ্চ আদালতের রায়ে তারেক রহমানের ফাঁসি হোক এটাই আমার চাওয়া।

বুধবার বিকেলে তিনি বলেন, আমি রায়ে সন্তুষ্ট, আবার কিছুটা অসন্তুষ্টও। ১৪ বছর পর রায় হওয়ায় সন্তুষ্ট। কিন্তু মামলার মূলহোতার ফাঁসির দণ্ড না হওয়ায় অসন্তুষ্ট আমি।

এর আগে বেলা ১২টার দিকে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। মামলার জীবিত ৪৯ আসামির মধ্যে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন বিচারক। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও বিএনপি চেয়ারপারসনের সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

জজ মিয়া বলেন, যদিও আশা করেছিলাম তারেক রহমানের ফাঁসি হবে, কিন্তু তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এখন রাষ্ট্রপক্ষ হয়তো উচ্চ আদালতে আপিল করবে।

এদিকে মূলহোতা বলতে কাকে বোঝাচ্ছেন জিজ্ঞাসা করা হলে তারেক রহমানের নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি চাই তার ফাঁসি হোক। রায়ের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি চাই রায় দ্রুত কার্যকর করা হোক।

২১ আগস্ট হামলার ঘটনায় বহুল আলোচিত নাম মো. জালাল ওরফে জজ মিয়া। নোয়াখালীর সেনবাগের কেশারপাড় ইউনিয়নের বীরকোট গ্রামে তার বাড়ি। যদিও এ ঘটনার সঙ্গে তার ন্যূনতম কোনো সম্পর্ক ছিল না। অথচ নিরপরাধ এই লোকটির সঙ্গে তখন জড়িয়ে যায় শীর্ষ সন্ত্রাসী খেতাব। তাকে অনেকগুলো বছর কারাভোগও করতে হয়।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালের ২১ অাগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানসহ ২৪ জন নিহত হন। আহত হন তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের ৪০০ নেতাকর্মী।

ঘটনার পরের বছর ৯ জুন বীরকোট গ্রাম থেকে জজ মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তদন্ত কর্মকর্তারা দাবি করেন, গ্রেনেড হামলার ঘটনায় তিনি মূল হোতা।

ঢাকার গুলিস্তানের ফুটপাতে জজ মিয়া তখন সিডি-পোস্টারের ব্যবসা করতেন। তবে গ্রেনেড হামলার ঘটনার দিন তিনি নোয়াখালীতে তার বাড়িতেই ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর

Best Electronics