কড়া নিরাপত্তায় ঢাকায় আসেন ইয়াহিয়া

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪২৬,   ১৭ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

১৫ মার্চ, ১৯৭১

কড়া নিরাপত্তায় ঢাকায় আসেন ইয়াহিয়া

স্বরলিপি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:৩৫ ১৫ মার্চ ২০১৯   আপডেট: ০১:৩৬ ১৫ মার্চ ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

এই দিনে জেনারেল ইয়াহিয়া খান ঢাকায় এসে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে আলোচনা করার ভান করতে থাকেন। অন্যদিকে সেদিনও বিমানে করে ঢাকায় সৈন্য আনা হয়। অস্ত্রবোঝাই যুদ্ধজাহাজ এসে চট্টগ্রাম বন্দরে নোঙর করে কিন্তু জনগণের বাধার কারণে সেই অস্ত্র তারা নামাতে পারছিল না।

এদিকে, শিল্পীদের খেতাব বর্ণ শুরু হয়ে যায়। শিল্পাচার্ জয়নুল আবেদিন তার ‘হেলাল ইমতিয়াজ’ খেতাব বর্ণ করেন।  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যক্ষ মুনীর চৌধুরী ‘সিতারা-ই- ইমহিয়াজ’ খেতাব বর্ণ করেন।

‘তঘমা এ কায়েদে আযম’ খেতাব বর্ণ করেন ফরিদপুর প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য শেখ মোশারফ হোসেন। নাটোর থেকে নির্বাচিত জাতীয় পরিষদের সদস্য ডা. শেখ মোবারক হোসেন ‘তঘমা এ পাকিস্তান’ খেতাব বর্ণ করেন। দৈনিক পাকিস্তান সম্পাদক আবুল কালাম শামসুদ্দিন তার ‘সিতারা- ই খিদমত’ এবং ‘ সিতারা-ই ইমতিয়াজ’ খেতাব বর্ণ করেন।

জাপান আর যুক্তরাজ্য সরকার তাদের নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছিলেন। প্রতিদিন শত শত অবাঙালি পশ্চিম পাকিস্তান যাচ্ছিল। কিন্তু বাঙালিদের প্লেনের টিকেট দেয়া হচ্ছিল না। বিশেষ করে বাঙালি ব্যবসায়ীদের বাধার মুখে পড়েছিল। এরা এদের স্ত্রী ছেলে-মেয়েদের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে দেশের বাইরে পাঠিয়ে দিতে শুরু করেছিল। মার্চে নিজেরা যাওয়ার চেষ্টা করছিল।

সে সময় লন্ডন থেকে শত শত সিলেটি বাঙালি ছুটি কাটাতে দেশে এসেছিল, এসে আটকা পড়ে যায়। পি. আই. এ এদেরকে অন্য এয়ার লাইনসে টিকিট এন্ডোর্স করে নেয়ার অনুমতিও দিচ্ছিল না। 

১৫ তারিখে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান ঢাকায় এসে পৌঁছান।

সূত্র : মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস: মুহম্মদ জাফর ইকবাল। একাত্তরের দিনগুলি: জাহানারা ইমাম।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

Best Electronics