Alexa ক্ষমা করার পূর্ণ ক্ষমতা রয়েছে আমার: ট্রাম্প

ঢাকা, শুক্রবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৬,   ০৮ রবিউস সানি ১৪৪১

ক্ষমা করার পূর্ণ ক্ষমতা রয়েছে আমার: ট্রাম্প

 প্রকাশিত: ১৪:৩৯ ২৩ জুলাই ২০১৭  

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, কাউকে ক্ষমা করার পূর্ণ ক্ষমতা রাখেন তিনি। ট্রাম্প তার পরিবারের সদস্য, সহযোগী এবং নিজেকে রাষ্ট্রপতির বিশেষ ক্ষমতা বলে ক্ষমা করার চিন্তা করছেন এমন অভিযোগের মধ্যে এই ঘোষণা দেয়া হলো। স্থানীয় সময় শনিবার সকালে এক সিরিজ টুইটার বার্তায় ট্রাম্প তার অ্যাটর্নি জেনারেল নিয়ে নতুন করে হতাশা ব্যক্ত করেন। ডেমোক্রেট দলের একজন মুখপাত্র বলেন, এই প্রতিবেদন সম্পূর্ণরূপে বিরক্তিকর। ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার সম্ভাব্য হস্তক্ষেপ তদন্ত করছে মার্কিন কর্তৃপক্ষ। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো মনে করছে গত বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বচানে ট্রাম্পের জয়ের ক্ষেত্রে রাশিয়ার হাত রয়েছে। তবে রাশিয়া বরাবরই সেই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। ট্রাম্পও বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে তার নির্বাচনী প্রচারণা দলের কোনা প্রকার যোগসাজোশ হয়নি। বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ট্রাম্প তার ঘনিষ্ঠজনদের ক্ষমা করে দেয়ার পরিকল্পনা করছেন। কোনো লোক দোষী সাব্যস্ত এবং কারও বিরুদ্ধে অপরাধ মূলক মামলা দায়েরের পূর্বেই প্রেসিডেন্ট তাকে ক্ষমা করে দিতে পারেন। শনিবার ট্রাম্প তার টুইটার বার্তায় লিখেছেন, ‘যখন সবাই জানে যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের ক্ষমা করার পূর্ণ ক্ষমতা আছে, তখন সেগুলো নিয়ে চিন্তা কেন, যখন আমাদের বিরুদ্ধে ফাঁস করা তথ্যই এ পর্যন্ত একমাত্র অপরাধ। ভুয়া খবরগুলো।’ অ্যাটর্নি জেনারেল সেনশেসনের সঙ্গে রুশ রাষ্ট্রদূতের যোগসাজোশ নিয়েও আক্রমণ করেছেন ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে শুক্রবার ওয়াশিংটন পোস্টের অন্য এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত গত বছর ট্রাম্পের উপদেষ্টা জেফ সেশনসের সঙ্গে নির্বাচনী প্রচার নিয়ে আলোচনা করার কথা তার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানোর সময় যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো আড়িপেতে শুনেছে। ওই সময় সেশনস একজন সিনেটর ছিলেন। প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ সংক্রান্ত সিনেটের শুনানিতে সেশনস তার সঙ্গে ২০১৬ সালে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত সের্গেই কিসলিয়াকের বৈঠকের কথা বলেননি; পরে এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হলে তিনি বলেছিলেন, বৈঠকে নির্বাচনী প্রচার নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।- বিবিসি। ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই