ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৮ ১৪২৫,   ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০

ক্রীড়ালেখনী সম্মাননা পেলেন পাঁচ অগ্রজ সাংবাদিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৪:১৫ ৬ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৪:১৫ ৬ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

ক্রীড়া বিষয়ক সাংবাদিকতা এবং লেখালেখির ৫০ বছর পার করায় পাঁচ বিরলপ্রজ ক্রীড়া সাংবাদিক এবং লেখককে সম্মাননা দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতি (বিএসপিএ)।

বুধবার বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সম্মাননাপ্রাপ্তদের হাতে শুভেচ্ছা স্মারক ক্রেস্ট এবং উপহার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রবীণ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এবং ক্রীড়ালেখক কামাল লোহানী এবং তাঁদের ব্লেজার পড়িয়ে দেন বিএসপিএ সভাপতি মোস্তফা মামুন।

সম্মাননাপ্রাপ্তরা হলেন- মুহাম্মদ কামরুজ্জামান, আব্দুল তৌহিদ, আজম মাহমুদ, ইকরামউজ্জমান এবং এমএ হান্নান খান।

ক্রীড়ালেখনীর সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত সম্মাননা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি কামাল লোহানী যে সকল ক্রীড়া সাংবাদিক এবং ক্রীড়াবিদ মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হয়েছেন তাদের স্মরণ করে বলেন, তাদের দেখানো পথ ধরেই ক্রীড়া সাংবাদিকতা এখন পেয়েছে ব্যাপকতা। তিনি আরও বলেন, ‘নতুন প্রজন্মের ক্রীড়া সাংবাদিকরা আমার কাছে অনুপ্রেরণার উৎস। তবে হালের কমেন্ট্রি বা ধারাভাষ্যের মান কমে গেছে আমার বিবেচনায়।

তিনি বলেন, ‘খেলাবিষয়ক লেখালেখি নিয়ে জীবনের পঞ্চাশটি বছর বা তারও বেশি সময় পার করে দেওয়াটা যে কোনো বিবেচনায় একটি অনন্য কৃতিত্বের। আর সেই বিরলপ্রজ ক্রীড়াসাংবাদিক ও ক্রীড়ালেখকদেরকে তাঁদের প্রাপ্য সম্মান বুঝিয়ে দিয়ে বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতি (বিএসপিএ) তার দায়িত্ব পালন করে ধন্য হয়েছে। কারণ এমন কীর্তিমানদের সম্মানিত করতে পারাটাও অনন্য মর্যাদার।’

সম্মাননা প্রাপ্ত মুহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, ‘নিয়তিই আমাকে ক্রীড়া সাংবাদিকতায় টেনে নিয়েছে।’ আবদুল তৌহিদ বলেন, ‘এ জাতীয় সম্মাননা পেয়ে আমি কৃতজ্ঞ, আমি কৃতার্থ।’ আজম মাহমুদ বলেন, ‘আমি ১৯৯৭ সালে এএফসি পুরস্কার পেলেও আজকের এ সম্মাননা আমার কাছে অনেক বড়।’

ইকরামউজ্জমান যোগ করেন, ‘জন্মলগ্ন থেকে আমি যে সংগঠনের সাথে জড়িত, সেই সংগঠনই আমাকে সম্মানিত করলো।’ এমএ হান্নান খান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘দৈবক্রমে ক্রীড়া সাংবাদিকতায় এলেও আজকের সম্মাননা অনন্য।’

বিএসপিএ সভাপতি মোস্তফা মামুন বলেন, ‘বিএসপিএ এখন অনেক সৃষ্টিশীল কাজের সঙ্গে জড়িত। এসব কাজের জন্য আমরা এখন অনেক পরামর্শ পাই, যা আমাদেরকে উৎসাহিত করে।’ অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান এবং বিএসপিএ’র সহ-সভাপতি শেখ সাইফুর রহমান।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস